জলবায়ু ট্রাষ্টের ঘর দেওয়ার নাম করে প্রতারক শহিদুলের লক্ষ টাকার অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ


অক্টোবর ২১ ২০২০

কালিগঞ্জ সংবাদদাতা : জয়বালু ট্রাষ্টের অধীনে এলাকার হতদরিদ্র নিরীহ লোকদের প্রলোভনের ফাঁদে ফেলে ঘর দেওয়ার নাম করে প্রতারক শহিদুলের বিরুদ্ধে লক্ষাধিক টাকার অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে কালিগঞ্জ উপজেলা ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের আব্দুলখালী গ্রামে। এব্যাপারে ভুক্তভোগীরা সোমবার দুপুরে কালিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর পৃথক পৃথক ভাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে এলাকার নিরীহ যুবকদের চাকুরী দেওয়ার নাম করে পরিবার হতে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে ভুক্তভোগীরা জানান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক রাসেল বিষয়টি আইন শৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে অফিসার ইনচার্জ কালিগঞ্জ থানা কে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে। লিখিত অভিযোগ এবং ভুক্তভোগী ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের আব্দুল খালী গ্রামের মৃত রূপচাঁদ গাজীর পুত্র হোসেন গাজী (৬৫), শহর আলী গাজীর পুত্র কাশেম গাজী (৬০), ঝড়ো গাজীর পুত্র সামাদ গাজী সহ একাধিক ব্যক্তি সাতনদীকে জানান আব্দুল খালী গ্রামের সামছুদ্দীনের পুত্র শহিদুল ইসলাম ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা পরিচয় দিয়ে গ্রামের সহজ সরল নিরীহ গরীব ব্যক্তিদের প্রতারনার ফাঁদে ফেলে নতুন ঘর নির্মান করে দেওয়ার লোভ দেখিয়ে পরিবার প্রতি ৬ হাজার টাকা করে প্রায় ৩০টি পরিবারের নিকট হতে ২ লক্ষাধিক টাকা আদায় আত্মসাত করেছে। দীর্ঘদিন ঘর না পেয়ে ভুক্তভোগীরা টাকা ফেরত চাইতে গেলে তাদের কে বিভিন্ন মামলার ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে দেয়। ভুক্তভোগীরা উপায়ন্তর না পেয়ে বিষয়টি এলাকার মেম্বর, চেয়ারম্যানদের জানিয়েও কোন লাভ হয়নি।
এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফজলুল হক বলেন, “শহিদুল একজন বড় মাপের প্রতারক। এছাড়াও সে এলাকার নিরীহ যুবকদের নিকট হতে চাকুরী প্রলোভনের ফাঁদে ফেলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।”
মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাৎ হোসেন বলেন, “শহিদুল একজন ঠক প্রতারক তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা না নিলে সে আরও মানুষ কে ঠকিয়ে সর্বশান্ত করে ছাড়বে।”
ঘটনার সত্যতা জানানার জন্য শহিদুলের ব্যবহৃত ০১৯——-৭৮ নাম্বার মোবাইলে একাধিকবার চেষ্টা করেও বন্ধ পাওয়া যায়।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন