পরিবেশ সাংবাদিকতায় আন্তর্জাতিক ফেলোশীপ পেলেন উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম মন্টু


এপ্রিল ১৪ ২০২০

Spread the love


পরিবেশ সাংবাদিকতায় আন্তর্জাতিক ফেলোশীপ পেলেন উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম মন্টু। ওয়াশিংটন ভিত্তিক পরিবেশ সাংবাদিকদের শীর্ষ সংগঠণ আর্থ জার্নালিজম নেটওয়ার্ক-ইজেএন‘বে অব বেঙ্গল প্রোগ্রাম’-এর আওতায় তাকে এই ফেলোশীপ দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক মিডিয়া অর্গানাইজেশন ইন্টারনিউজের তত্বাবধানে এ ফেলোশীপের কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

বঙ্গোপসাগর অঞ্চলে জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে অভিযোজন সংক্রাš Íনির্দিষ্ট প্রতিবেদন তৈরির জন্য এ ফেলোশীপ দেওয়া হয়। ফেলোশীপের আওতায় উপকূলীয়অঞ্চলের নির্দিষ্ট এলাকার জনগোষ্ঠীর ওপর ক্রমাগত দুর্যোগ ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব এবংঅভিযোজন বিষয়ে ইনডেপথ প্রতিবেদন তৈরি করবেন। বর্তমানে দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল রাইজিংবিডি’র সঙ্গে কাজ করছেন রফিকুল ইসলাম মন্টু।

বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চল নিয়ে সাংবাদিকতায় একটি ভিন্ন ধারা তৈরি করেছেন রফিকুল ইসলাম মন্টু।তার কাজের ক্ষেত্র সমগ্র উপকূলের ঝুঁকিতে থাকা ১৬ জেলা। জেলাগুলো হচ্ছে: কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, বরিশাল, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরগুনা, ভোলা, ঝালকাঠি, শরীয়তপুর, খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা।

এই সব জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে তিনি দীর্ঘ সময় ধরে গভীর অনুসন্ধানের মাধ্যমে উপকূল এলাকার মানুষের কণ্ঠ তুলেএনে খবর তৈরি করছেন। দীর্ঘ সময় ধরে গভীর অনুসন্ধানের মাধ্যমে উপকূল এলাকার মানুষের কণ্ঠ তুলেএনে খবর তৈরি করছেন তিনি। লিখছেন উপকূলের পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন, দুর্যোগ, নাগরিক সেবা, জনজীবনসহ বিভিন œবিষয় নিয়ে। তার কাজের মধ্য দিয়ে সর্ব মহলে পরিচিতি পেয়েছে‘উপকূল সাংবাদিকতা’। নতুন প্রজন্মের সাংবাদিকেরা উপকূল ভিত্তিক সাংবাদিকতায় উৎসাহী হয়ে উঠছেন।

দীর্ঘ সময় ধরে সাংবাদিকতা পেশায় রফিকুল ইসলাম মন্টু। বাংলাদেশের শীষর্ স্থানীয় দৈনিক প্রথমআলো, কালের কণ্ঠ, সমকাল, মানবজমিন, বাংলা নিউজ টোয়েন্টিফোর, দৈনিক সংবাদ, ভোরের কাগজ, বাংলাবাজার পত্রিকাসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে কাজ করেছেন তিনি। তার সাংবাদিকতায় হাতে ঘড়ি ১৯৮৪ সালে সাপ্তাহিক নবঅভিযান থেকে। এর আগে তিনি দেওয়াল পত্রিকার মাধ্যমে সংবাদ লেখার চর্চা করেছেন।

কাজের স্বীকৃতি হিসাবে রফিকুল ইসলাম মন্টু ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি বেস্ট রিপোর্টিং আওয়ার্ড পেয়েছেন তিনবার। ইউনিসেফ-মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন তিনবার। পিআইবি-এটুআই মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন দু’বার। এছাড়াও পিআইবি-ইউনিসেফ ফিচার পুরস্কার, সরেজমিন প্রতিবেদনের জন্য চারণ সাংবাদিক মোনাজাতউদ্দিন স্মৃতি পুরস্কার, জন সংখ্যা বিষয়ক প্রতিবেদনের জন্য এফপিএবি পুরস্কার, জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক প্রতিবেদনের জন্য বিসিডিজেসি-কানাডিয়ান অ্যাওয়ার্ড, দুর্যোগ বিষয়ক প্রতিবেদন লেখার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ব্যুরো’র অ্যাওয়ার্ডসহ প্রায় ২০টি পুরস্কার অর্জন করেন।

তার পুরস্কার প্রাপ্ত সবগুলো খবর উপকূলীয় ইস্যু নিয়ে লেখা।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন