পাইকগাছায় কলমিবুনিয়া গুচ্ছ গ্রামের আলেয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ! পুলিশের ঘটনাস্থল পরিদর্শন


জানুয়ারি ২০ ২০২০


পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি।। খুলনার পাইকগাছায় আলেয়া বেগম (৪৫) নামে এক গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ সুরতহাল রিপোট শেষে ময়না তদন্তের জন্যে খুমেক হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। আলেয়া উপজেলার রাড়ুুলী ইউপির ৮ নং ওয়ার্ডের মৃতঃ শাহাজান গাজীর স্ত্রী। স্থানীয়রা জানান, সোমবার ভোরে আলেয়াকে ডাক দিয়ে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে তাকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশের খবর দেয়া হয়। খবর গেয়ে দ্রুত অতিঃ পুলিশ সুপার মোঃ আসাদুজ্জামান ও ওসি এমদাদুল হক শেখ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, রবিবার গভীর রাতে দুর্বত্তরা ভাঙ্গাঘরে ঢুকে তাকে সম্ভবতঃ ধর্ষন করে গলায় ওড়না পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করতে পরে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। তবে, ময়না তদন্তের রিপোট পেলে সবই পরিস্কার হওয়া যাবে। এ মুহুর্তে আগাম কোন মন্তব্য করা ঠিক হবেনা বলে তিনি জানান। নিহতের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে এবং তারা বিবাহিত। বর্তমানে ছেলে আলমগীর যশোরের বাগ আচড়ায় ইটের ভাটায় কাজ করে। মায়ের হত্যা কান্ডের খবর পেয়ে সে চলে এসেছে। গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ দুলজান বিবি, জিয়ারুল গাজী জানান, কলমিবুনিয়া গুচ্ছ গ্রামের অধিকাংশ মানুষ এখন ইটের ভাটার কাজে গিয়েছে। একটি ব্যারাকে শুধু আলেয়া বসবাস করে। আলেয়া খুবই সাহসী ছিলেন। কে বা কারা এ ঘটনা ঘটালো তারা কিছুই বলতে পারেন না। সে বিভিন্ন চিংড়ী ঘেরে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করত। তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই মহিউদ্দীন আহম্মদ জানান, এ ঘটনায় কেহ আটক হয়নি। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত নিহতের ছেলে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন