এস কে সিনহার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করে ফেঁসে যাচ্ছেন নাজমুল হুদা


ডিসেম্বর ৪ ২০১৯

Spread the love

এস কে সিনহার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করে ফেঁসে যাচ্ছেন নাজমুল হুদা

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা ও ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা (ডানে)

ক্ষমতার অপব্যবহার এবং উৎকোচ নেয়ার অভিযোগ এনে সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা যে মামলা করেছিলেন, সেই অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি বলে জানিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (৪ ডিসেম্বর) বিকালে এই তথ্য জানিয়ে কমিশনের মহাপরিচালক (বিশেষ তদন্ত) সাঈদ মাহবুব খান গণমাধ্যমকে বলেন, মিথ্যা অভিযোগের কারণে দুদক নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর শাহবাগ থানায় এস কে সিনহার বিরুদ্ধে সোয়া তিন কোটি টাকা ঘুষ দাবি করার অভিযোগে মামলাটি করেন বিএনপির সাবেক নেতা ব্যারিস্টার হুদা, যিনি এখন আওয়ামী লীগের ঘনিষ্ঠ। এরপর মামলাটি তদন্তের জন্য দুদককে দায়িত্ব দেয় আদালত। চলতি বছরের ২৮ জুলাই ওই মামলায় হুদার বক্তব্য গ্রহণ করে দুদক। ওইদিন দুপুর ৩টা থেকে কমিশনের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে একটি তদন্ত দল হুদার বক্তব্য গ্রহণ করেন। সেদিন ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ২০১৭ সালে আমার কাছে সোয়া তিন কোটি টাকার ঘুষ দাবি করেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা। সে সময় তিনি আমাকে বলেছিলেন টাকা না দিলে আমার বিরুদ্ধে করা সবকটি মামলার রায় বিরুদ্ধে যাবে। ঘটনার তারিখ ছিল ২০ জুলাই। ওইদিন দুপুরে প্রধান বিচারপতি তার খাস কামরায় ডেকে ঘুষ দাবি করেন।

বুধবার (৪ ডিসেম্বর) দুদকের জনসংযোগ শাখা জানায়, এস কে সিনহার বিরুদ্ধে অভিযোগ শাহবাগ থানায় সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টর নাজমুল হুদার দায়েরকৃত মামলাটি দুদকের তদন্তে মিথ্যা প্রমাণিত হওয়া সাবেক প্রধান বিচারপতিকে এই মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়েছে দুদক। এ জাতীয় মিথ্যা মামলা দায়ের করায় নাজমুল হুদা-র বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন, ২০০৪ এর ২৮(গ) (২) ধারায় একটি নিয়মিত মামলা রুজুর অনুমোদন দিয়েছে কমিশন।

তদন্তে জানা যায়, মামলাটি কাল্পনিক সাজানো ঘটনা মর্মে প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এবং এজাহারকারী অসৎ উদ্দেশে আদালতের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার মানসে আলোচ্য মিথ্যা মামলাটি রুজু করেছেন মর্মেও প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়। বর্ণিত অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে অত্র মামলায় FR as IM (Final Report as Intentionally False) দাখিলের সুপারিশ করেছেন এবং একই সাথে নাজমুল হুদা জেনে শুনে অসৎ উদ্দেশ্যে বিজ্ঞ আদালতের ভাবর্মূতি ক্ষুণ্ণ করার জন্য এবং তার বিরুদ্ধে রুজুকৃত শাহবাগ থানা (ডিএমপি) মামলা নং : ১০১, তারিখ : ১৮-০৬-২০০৮ খ্রি: মামলাটি প্রশ্নবিদ্ধ করার মানসে অত্র এজাহারে বর্ণিত মিথ্যা ঘটনার সৃষ্টি করে মামলাটি রুজু করেছেন মর্মে প্রাথমিকভাবে প্রাপ্ত তথ্য প্রমাণে প্রমাণিত হওয়ায় জনাব নাজমুল হুদা, এর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন, ২০০৪ এর ২৮(গ) (২) ধারায় একটি নিয়মিত মামলা রুজুর অনুমোদন দিয়েছে কমিশন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন