সম্পাদকদের সাথে মতবিনিময়কালে জেলা প্রশাসক : পানি নিষ্কাশনে বাঁধা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে


অক্টোবর ৩১ ২০১৯

Spread the love


মশাল রিপোর্ট: সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত স্থানীয় পত্রিকার সম্পাদকদের সাথে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল মতবিনিময় করেছেন। বৃহস্পতিবার বেলা ১টায় জেলা প্রশাসকের অফিস কক্ষে সম্পাদকদের সাথে এই মতবিনিময় করেন তিনি। এ সময় তিনি বলেন, নদী-খাল-জলাশয়ে নেট-পাটা-বাঁধ দিয়ে পানি নিষ্কাশনে বাঁধা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ গ্রহণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, শুধু বাঁধ নেট-পাটা অপসারণ করে ফিরে আসবে না, যারা এর সাথে যুক্ত তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।
সভায় সাতক্ষীরা-মুন্সিগঞ্জ সড়কের শহর অংশ ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ হাট-বাজার এবং যেসব এলাকায় সড়কের পাশের অবৈধ স্থাপনার কারণে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্ঠি হয় সেগুলো উচ্ছেদে অভিযান অব্যাহত রাখার কথা জানানো হয়।
জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেন, বৃহত্তর জনগোষ্ঠির সুবিধার জন্য যাতে মানবিক দিকটাও উপেক্ষিত না হয় সে ব্যাপারে জেলা প্রশাসন সজাগ রয়েছে। পারুলিয়ার সাপমারা খাল খননের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। তাদের বিষয়টিও বিবেচনা করা হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, শহরের প্রাণ সায়র খাল পাড়ের ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ না করে যাতে তারা নিজেরাই স্থানান্ত্রিত হয় সেই উদ্যোগই নেওয়া হচ্ছে। জেলা প্রশাসক বিআরটিএ, পাসপোর্ট অফিস, রেজিস্ট্রি অফিস, ভূমি অফিসসহ বিভিন্ন অফিসে মানুষ হয়রানি ছাড়াই যাতে কাঙ্খিত সেবা পেতে পারে সে ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। জেলা প্রশাসক মুজিব বর্ষ সামনে রেখে ইতোমধ্যে জেলায় যেসব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তা তুলে ধরে সকল কর্মসূচি বাস্তবায়নে সম্পাদকদের সহায়তা কামনা করেন।
সভায় সম্পাদকদের পক্ষ থেকে ক্লিন সাতক্ষীরা, গ্রিন সাতক্ষীরা ও দুর্নীতিমুক্ত সাতক্ষীরা বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসন গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের প্রশংসা করা হয়। একই সাথে জনগনের দুর্ভোগের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে প্রয়োজনে আরো কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। তবে উচ্ছেদের কারণে দরিদ্র মানুষের জীবন-জীবিকায় যতটা প্রভাব কমানো যায় সে ব্যাপারেও প্রশাসনের সজাগ দৃষ্টি রাখার অনুরোধ জানানো হয়।
সভায় সাতক্ষীরা থেকে মুন্সিগঞ্জ পর্যন্ত সরাসরি বাস চলাচলে কালিগঞ্জে যে প্রতিবন্ধকতা রয়েছে তা অপসারণে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। একইসাথে ভারতে যাতায়াতকারী যাত্রীদের সুবিধার্থে ভোমরা থেকে ঢাকার পরিবহন ছাড়ারও ব্যবস্থা করা যায় কি-না সে বিষয়টিও জেলা প্রশাসকের নজরে আনা হয়।
সভায় সম্পাদকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক কালের চিত্র সম্পাদক অধ্যাপক আবু আহমেদ, জেলা সংবাদপত্র পরিষদের আহবায়ক ও দৈনিক দৃষ্টিপাত সম্পাদক জিএম নুর ইসলাম, দৈনিক পত্রদূতের উপদেষ্টা সম্পাদক এড. আবুল কালাম আজাদ, দক্ষিণের মশালের অধ্যক্ষ আশেক-ই-এলাহী, সাতনদীর হাবিবুর রহমান, আজকের সাতক্ষীরার মহাসীন হোসেন বাবলু, সূর্যের আলোর ওয়ারেশ খান চৌধুরী, মুক্ত স্বাধীনের আবুল কালাম, দৈনিক কাফেলার এম ঈদুজ্জামান ইদ্রিস প্রমুখ।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন