আশাশুনির কাকবাসিয়ায় খেয়াঘাট না থাকায় পারাপারে ভোগান্তি চরমে


জুলাই ৬ ২০১৯

Spread the love


আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার আনুলিয়া ইউনিয়নের কাকবাসিয়ায় খোলপেটুয়া নদীতে খেয়াঘাট না থাকায় জনসাধারণের নদী পারাপারে ভোগান্তি চরম আকারে ধারণ করেছে। নদীটির এক পাশে আনুলিয়া এবং অপরপাশে শ্রীউলা ইউনিয়নের মানুষ নদী পার হচ্ছে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ পর্যন্ত নিজেদের কাজ কর্ম ও গন্তব্যে পৌছাতে নদী পারাপার হতে হয় তাদের। আর এ নদীতে খেয়ার নৌকা থাকলেও খেয়াঘাট না থাকায় চরম ভোগন্তি পোহাতে হয় তাদের। পারাপারের নৌকার মাঝি কাকবাসিয়া গ্রামের মুনছুর গাজীর ছেলে আনিছুর রহমান জানান, প্রায় ৫০বছর ধরে এ নদীতে পর্যায়ক্রমে তারা খেয়া পারাপার করে আসছেন। প্রতিবছর সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ থেকে সর্বচ রাজস্ব প্রদানের মাধ্যমে তারা সরকার বাহাদুরের নিকট থেকে খেয়াঘাট ইজারা গ্রহণ করে থাকেন। তিনি আরও বলেন এখানে কোন খেয়াঘাট না থাকায় সাধারণ মানুষ ও মটরসাইকেল চালকদের ভোগান্তির অন্ত থাকে না। কাদামাটি মেখে নৌকায় উঠতে হয় তাদের। বিষয়টি তিনি জেলা পরিষদসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে কয়েক দফায় লিখিত ভাবে আবেদন করলেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে খোলপেটুয়া নদীর কাকবাসিয়ায় উভয়পাড়ে পাকা খেয়াঘাট নির্মানের জন্য জেলা পরিষদসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তার আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী ও স্থানীয় সচেতন মহল।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন