সংবাদ সম্মেলনে পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি : ৪৬ লক্ষ টাকার দু’টি প্রকল্প নিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে পৌরসভার উন্নয়ন বাঁধাগ্রস্থ ও ভাবমুর্তি নষ্ট করা হয়েছে


মে ২৯ ২০১৯


স্টাফ রিপোর্টার ঃ সরকারি নীতিমালা মেনে ই-টেন্ডার পক্রিয়ার মাধ্যমে পত্রিকায় বিজ্ঞ্িপ্ত দিয়ে দরপত্র ও সিডিউল অনুযায়ী পৌরসভার উন্নয়ন ৪৬ লক্ষ টাকার দু’টি প্রকল্প নিয়ে অহেতুক মিথ্যা ও অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে উদ্দেশ্য প্রণোদীতভাবে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে সাতক্ষীরা পৌরসভা। বুধবার (২৯ মে) বিকালে সাতক্ষীরা পৌরসভার আয়োজনে পৌর কনফারেন্স রুমে এ সংবাদ সম্মেলনে পৌরসভার কাউন্সিলর ও পৌরসভার সকল স্টাফদের সাথে নিয়ে লিখিত ও মৌখিক বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি। সংবাদ সম্মেলনে মেয়র চিশতি বলেন, সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে কিছুদিন আগে স্থানীয় িএকটি দৈনিকে যে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে সে পৌরসভায় এসেছিল। দুর্নীতির সংবাদ পরিবেশনের হুমকির ভয় দেখিয়ে অনেক টাকা চাঁদা দাবী করেছিল। তার দাবীকৃত চাঁদা না দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে এ মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে। দৈনিক পত্রদূত ও অনলাইন পোর্টাল দৈনিক সাতক্ষীরায় যারা মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে তাদের এই সংবাদ সম্মেলনে আসার আহবান জানিয়েছিলাম সকল কাগজ পত্র দেখতে। কিন্তু তারা আসেনি। কারণ তাদের সৎ সাহস নেই। পৌরসভার মাসিক সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ১২/০৪/২০১৯ ইং তারিখে ইংরেজি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ডেইলি ইন্ডাস্ট্রি, জাতীয় দৈনিক আমার সংবাদ ও সাতক্ষীরা স্থানীয় দৈনিক পত্রিকা কালের চিত্র পত্রিকায় দরপত্র আহবান করে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয় এবং নিদিষ্ট তারিখে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ও পৌরসভায় মোট ৩টি সিডিউল জমা পড়ে। যাচাই বাঁছাই শেষে দু’টি সিডিউল বৈধ হয়। কোন বিদেশী সাহার্য্য সংস্থার অর্থায়ণে এ প্রকল্পের কাজ হচ্ছেনা। অথচ এই সংবাদে সাহার্য্য সংস্থার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। যারা এই মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে পৌরসভা ও পৌরবাসীর ভাবমুর্তি নষ্ট করেছেন। সেই সাথে পৌরসভার উন্নয়ন কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করার অপচেষ্টা চালিয়েছেন। একবার ভেবে দেখুন মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনে যদি বিদেশী সংস্থা জার্মান প্রকল্পের টাকা ফেরত যায় তাহলে পৌরসভার দেড় দুই লক্ষ মানুষ উন্নয়ন বঞ্চিত হবে। এটা কি সমুচিন হবে ? আমি পৌরসভার উন্নয়ন করতে এসেছি। আমি লুটপাট করতে আসিনি। পৌরসভা স্বেচ্ছাচারিতা করেনা। পৌরসভা যদি সত্যিকার অর্থে কোন দুর্নীতি করে প্রমাণ সাপেক্ষে বিরুদ্ধে লিখুন কিছুই বলবোনা। মিথ্যা লিখবেন ছাড় পাবেননা। মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে পৌরসভা ও পৌরবাসীর যে ভাবমুর্তি নষ্ট হয়েছে তার জবাব দিতে হবে। প্রেসক্লাবের সদস্য পদ বাতিল চেয়ে আবেদন জানান হবে এবং জাতীয় প্রেস কাউন্সিলে প্রতিকার চেয়ে আবেদন পাঠাবো। মিথ্যার বেসাদী ছেড়ে পৌরসভার উন্নয়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন পৌর মেয়র। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র কাজী ফিরোজ হাসান, ফারহা দীবা খান সাথী, মহিলা কাউন্সিলর জ্যোৎ¯œা আরা, পৌর কাউন্সিলর শেখ শফিক উদ দৌলা সাগর, শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু, মো. শফিকুল আলম বাবু,শাহিনুর রহমান শাহিন, শেখ আব্দুস সেলিম, মহিলা কাউন্সিলর অনিমা রাণী মন্ডল, পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল করিম, পৌরসভার সচিব মো. সাইফুল ইসলাম বিশ^াস, পৌরসভার সহকারি প্রকৌশলী কামরুল আখতার, শহর পরিকল্পনাবিদ শুভ্র চন্দন মহলী, এসও সাগর দেবনাথসহ পৌর কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন