আশাশুনি খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ দুই দিনেও সংস্কার সম্ভব হয়নি


এপ্রিল ২৪ ২০১৯


শেখ বাদশা, আশাশুনি : আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরের খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ গতদুই দিনেও সংস্কার করা সম্ভব হয়নি। ফলে আবারও নতুন করে নিম্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে ভেসে গেছে শতাধিক মৎস্য ঘের। পানিবন্দী হয়ে পড়ছে সহ¯্রাধিক মানুষ। ইতি মধ্যে ভেঙ্গে পড়ছে বেশকিছু কাঁচা ঘর-বাড়ি। স্বেছাশ্রমের ভিত্তিতে সংস্কার কাজ চালিয়ে গেলেও সেটি সম্পূর্ণ সংস্কার করা সম্ভব হয়নি। ইতি মধ্যে গবাদিপশু, শিশু ও বৃদ্ধাদের অন্য স্থানে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এলাকা বাসীর অভিযোগ, গত দুইদিন ধরে ভাঙ্গন দেখা দিলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড বা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তেমন কোন সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসী আরও জানান, বিগত সময়েও কয়েকবার বেড়িবাঁধ ভেঙে গেলেও পারি উন্নয়ন বোর্ডের চরম গাফিলাতির কারণে আজ পর্যন্ত টেকসই বাঁধ নির্মাণ সম্ভব হয়নি। তবে ভাঙন এলাকাটি আশাশুনি উপজেলার নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এব্যাপারে প্রতাপনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বলেন, সোমবার ভোরে ইউনিয়নের কোলা গ্রামের পরিমল মন্ডলের বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় খোলপেটুয়া নদীর প্রায় ১০০ ফুট বেড়িবাঁধ ভেঙে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এতে গত দুদিনে প্রতাপনগর ইউনিয়নের কোলা ও হিজলা গ্রাম সহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়। ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে গত দুইদিনে বাধ মেরামতের চেষ্টা করেও জোয়ার শুরু হওয়ায় মক্সগলবারও তা ব্যর্থ হয়েছেন। এব্যাপারে সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফউজ্জামান খান বলেন, জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের নির্দেশনায় মঙ্গলবার সকাল থেকে খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ সংস্কারের কাজ শুরু হয়েছে। দ্রুত বেড়িবাঁধ সংস্কারের কাজ সম্পন্ন হবে বলে তিনি জানান।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন