আশাশুনির খবর


এপ্রিল ২০ ২০১৯


এমপি রুহুল হকের শোক জ্ঞাপন

আশাশুনি প্রতিনিধি : জাতীয় সংসদ সদস্য রুহুল হকের প্রতিনিধি শম্ভুজিত মন্ডলের সহোদর ভ্রাতা ও আশাশুনি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি নিতাই চন্দ্র মন্ডলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, এমপি ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য অধ্যাপক ডা: আ ফ ম রুহুল হক। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ নেতা নিতাই বাবুর মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে শোকাহত। আমি তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। মহান সৃষ্টিকর্তা যেন তার বিদেহী আত্মাকে স্বর্গবাসী করেন। সেই সাথে তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা ও সহানুভুতি জ্ঞাপন করছি।



আশাশুনি পল্লী বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে নাজেহাল সাধারণ মানুষ

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের লোডশেডিং এর নামে বিদ্যুৎ বন্ধ রাখার যন্ত্রনায় পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহকরা চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। প্রতিদিন দিনে ও রাতে বিদ্যুতের লাগামহীন লোডশেডিং এর ফাঁদে পড়ে গ্রাহকদের নাভিশ^াস উঠার উপক্রম হয়েছে। বিদ্যুতের উৎপাদন যেখানে আশাব্যাঞ্জক পর্যায়ে রয়েছে। সেখানে বিদ্যুতের লোডশেডিং সহনশীল পর্যায় থাকার কথা। কিন্তু বিদ্যুৎ বিভাগ গ্রাহকদের সাথে বিমাতাসূলভ আচরণ করেই চলেছে। মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে স্বভাবসূলভ জবাব পাওয়া যায়, লোডশেডিং চলছে, লাইনে কাজ চলছে, কিংবা উপর থেকে বন্ধ রাখা হয়েছে ইত্যাদি কথা শুনিয়ে দেন পল্লী বিদ্যুতের অভিযোগ কেন্দ্র থেকে। বিদ্যুতের সরবরাহ কত কেভি থাকে সেটি জানার সুযোগ সাধারণ গ্রাহকদের নেই। কিন্তু অবাক হওয়ার কথা, সকাল থেকে শুরু করে সারাদিন ও সারারাত বিদ্যুতের আনাগোনার রেওয়াজ বুধহাটা ফেডারেই দেখা যায়। ভোর রাত থেকে শুরু করে, সকালে, বেলা বাড়লে, দুপুরে, বিকালে বিদ্যুতের কতবার আগমন প্রস্থান এই ফেডারে হয়ে থাকে তা হিসাব রাখা কঠিন। সন্ধ্যা নামলেই বিদ্যুতের লাপাত্তা এ ফেডারে প্রতিদিনের সঙ্গী। এরপর সারারাত এ পরিস্থিতি বিরাজমান থাকে। বলতে গেলে বিদ্যুৎ লোডশেডিং মানে বুধহাটা ফেডারের উপরই লেগেই থাকে। অন্য ফেডারগুলোতে এই পরিস্থিতি খুব কমই দেখা যায়। অন্য স্থানে যদি ২বার লোডশেডিং হয়, বুধহাটা ফেডারে ১০ বার হবে এমনটাই যেন ধরাবাধা গদ হয়ে দাড়িয়েছে। বুধহাটা ফেডারে রয়েছে বহু কল কারখানা, অফিস-ব্যাংক-বীমা, স্কুল-কলেজ-মাদরাসাসহ সর্বাপেক্ষা বেশী সংখ্যক দোকান-পাট। বিদ্যুৎ না থাকলে বুধহাটা ফেডারের কয়েক শত কারখানা, ওয়েল্ডিং মেশিন, হাসপাতাল, ক্লিনিক, লেদ, কম্পিউটার ও ফটোকপিয়ার মেশিনসহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠান মুখ থুবড়ে পড়ে। শ্রমিকরা ও উপকারভোগিরা সারাদিন বসে বসে ক্লান্তিহীন সময় পার করতে বাধ্য হন। এব্যাপারে আশাশুনি বিদ্যুৎ অফিসের এজিএম এর সাথে মোবাইলে কথা বললে তিনি জানান, বর্তমানে লোড শেডিং নেই, সিস্টেম সমস্যার কারণে মাঝে মধ্যে সমস্যা হচ্ছে। বিদ্যুৎ কর্তার এহেন জবাবে গ্রাহকরা সন্তুষ্ট হতে পারছেন না। তাদের দাবী বুধহাটা ফেডারের গ্রাহক ভোগান্তি দূর করতে কর্তৃপক্ষ সুনজর দেবেন। যাতে অযথা কিংবা অতিরিক্ত ভোগান্তিতে গ্রাহকদের না পড়তে হয়।

আশাশুনির কাদাকাটিতে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধন

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটিতে পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। কাদাকাটি গ্রামের মৃত নেয়ামত আলি সরদারের পুত্র মহব্বত আলি বাড়ির পাশে দেড় বিঘা জমির পুকুরে মাছ চাষ করেন। পুকুরে রুই, কাতলা, মৃগেল, গ্লাস কার্পসহ বিভিন্ন প্রজাতের সাদা মাছ ছিল। পুকুরটি একই গ্রামের কওছার সরদারের পুত্র কাশেম ও আনছার আলির পুত্র আশরাফ ডিড নিয়েছেন। বুধবার রাতে কে বা কারা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। শুক্রবার ভোরে পুকুরে মাছ ছটফট করতে দেখে বিষ দেওয়ার বিষয়টি জানাজানি হয়। দ্রুত জাল দিয়ে মাছ ধরার সময় পানিতে রিপকর্ড নামের বিষের বোতল পাওয়া যায়। বিষক্রিয়ায় ৬০/৭০ হাজার টাকার মাছ মারা গেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

আশাশুনিতে কৃষি কর্মকর্তাদের
সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলায় কর্মরত কৃষি কর্মকর্তাদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রাজিবুল হাসানের সভাপতিত্বে সভায় উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা জি এম অলিউল ইসলাম, এসএপিপিও আঃ গনি, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা রেজওয়ানুল কবির চৌধুরী, ইকবাল হোসেন, জাহিদ হাসান, মাহরুফ হোসেন, রফিকুল ইসলাম, ইউনুছ আলি, সানা আবু জাফর, মহিউদ্দিন গাজী-১, দিপক কুমার মল্লিক, তরিকুল ইসলাম, আছাদুল ইসলাম, অরবিন্দু কুমার মন্ডল, প্রতাপ কুমার মন্ডল, রামকৃষ্ণ দেবনাথ, আকিকুন নেছা, আরিফুল ইসলাম, শামিম ইসলাম, মুজিবর রহমান, এস এম আব্দুল ওহাব, সুখদেব কুমার সাধু, মহিউদ্দিন গাজী-২, শিবপদ সরকার, গোবিন্দ লাল কুন্ডু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বোরো ধানের প্রনোদনা, বোরো শস্য কর্তন, খরিপ-১ মৌসুমে পাট, শাক-সবজীর অবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

আশাশুনি থানা পুলিশের অভিযানে ৫আসামী আটক

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনিতে পুলিশী অভিযানে গ্রেফতারী পরোয়ানার পাঁচ আসামীকে আটক করা হয়েছে। থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার নাথের নেতৃত্বে আশাশুনি থানা এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তাদেরকে আটক করা হয়। এসআই বিল্লাল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স সহ সিআর-৩১/১৮ (ওয়ারেন্ট) মূলে কুল্যা গ্রামের আঃ আজিজ সরদারের ছেলে আবু সাইদকে কুল্যার মোড় হতে আটক করেন। এএসআই মোকাদ্দেস হোসেন সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ জিআর-১৪৬/১৮ (ওয়ারেন্ট) মূলে কেয়ারগাতী গ্রামের মৃত রুহুল আমিন গাজীর ছেলে মনিরুল ইসলাম কে নিজ গ্রাম হতে আটক করেন। এএসআই মাহাবুব হাসান সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় নন জিআর-৬২/১১ (ওয়ারেন্ট) মূলে গুনাকরকাটি গ্রামের রজো মোল্যার ছেলে বাবুল মোল্যা কে গুনাকরকাটি বাজার হতে আটক করেন। এএসআই তরুন কৃষ্ণ রায় সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় জিআর-১৭৭/১৮ (ওয়ারেন্ট) মূলে গুনাকরকাটি গ্রামের মৃত মানিক গাজী ছেলে আঃ রশিদ কে তার নিজ বাড়ী হতে আটক করেন। এএসআই জাকির হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় জিআর-২০৪/১৭ (ওয়ারেন্ট) মূলে কুড়িকাহুনিয়া গ্রামের আলী লস্করের ছেলে ইয়াকুব লষ্কর কে তার নিজ বাড়ী হতে আটক করেন। আটককৃত সকল আসামীদেরকে চালান মোতাবেক শুক্রবার সকালে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নওয়াপাড়া ঢালীবাড়ী জামে মসজিদের কমিটি গঠন
সভাপতি- রানা, সম্পাদক- আছাফুর

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার নওয়াপাড়া ঢালী জামে মসজিদের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। শুক্রবার জুম্মা বাদ অত্র মসজিদে নতুন কমিটি গঠনের জন্য এক উন্মুক্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এটিআরএম হুমায়ুন কবীর রানাকে সভাপতি ও হাফেজ মোঃ আছাফুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে আগামী ৩ বৎসরের জন্য নতুন কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্যান্যরা হলেন, সহ-সভাপতি মোঃ রফিক উদ্দীন আহম্মেদ, মোঃ শহিদুল ইসলাম শহীদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তায়জুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মোঃ আব্দুস সবুর, মোঃ শওকত হোসেনকে সহ- অর্থ সম্পাদক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়া উক্ত কমিটিতে ৫ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা করা হয়। উপদেষ্টারা হলেন, আলহাজ্ব আঃ হাকিম ঢালী, মাওঃ আব্দুর রাজ্জাক, আলহাজ্ব মাওঃ মিজানুর রহমান, মোঃ আঃ বারী ও আনছার আলী সরদার।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন