চেয়ারম্যান ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার চাই, সুজন সানাকে গ্রেফতার দাবি গ্রামবাসীর


মার্চ ২৮ ২০১৯

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি: চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিম বারবার খাজরা ইউনিয়নে জয়লাভ করে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন। তিনি এ এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের জন্য অনেক কাজ করেছেন। তাদের সুখে দুঃখে তাদের আপদে বিপদে প্রয়োজনে সব সময় চেয়ারম্যান ডালিম পাশে থেকেছেন। আর এ কারণে তিনি আমাদের কাছে দেবতাতুল্য, ভগবান। আমরা তার হিত কামনা করি। অথচ এমন একজন মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করে তাকে সামাজিকভাবে অপমানিত করতে এলাকার মাদকসেবী ও মাদক কারবারী সুজন সানা তার নামে মিথ্যা মারপিটের অভিযোগ করেছে। আমরা এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ মামলা প্রত্যাহার এবং মাদক কারবারী সুজন সানাকে গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।
বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদী মানববন্ধন কর্মসূচির পর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের বাসিন্দারা। লিখিত বক্তব্যে ইউপি সদস্য ঘুঘুমারি গ্রামের অনুপ কুমার সানা বলেন সুজন সানা একজন মাদক কারবারী। সে এলাকার যুবসমাজকে মাদকের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এতে যুবসমাজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে এসে গেছে। এ নিয়ে আমরা প্রতিবাদ করে আসছি। আশাশুনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জনপ্রিয় চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিমও সম্প্রতি সুজন সানার কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করেছেন। আর এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে সুজন তাকে সামাজিকভাবে হেয় করার লক্ষ্যে মিথ্যা নাটক সাজিয়ে ফায়দা লুটতে কথিত মারপিটের অভিযোগ এনেছে। অবিলম্বে এই অভিযোগ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে তারা বলেন সুজন সানার সাথে মাদক কারবার নিয়ে তার লোকজনের দ্বন্দ্ব রয়েছে। তারাই তাকে মারধর করেছে জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয় উপজেলা নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী শহিদুল ইসলাম পিন্টুর ইন্ধনে এই রটনা দেওয়া হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে ঘটনার সময় চেয়ারম্যান ডালিম ভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন।
মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে তারা আরও বলেন মাদককারবারী সুজন প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে বাজে উক্তি করেছে। সে নিজেকে সংখ্যালঘু পরিচয় দিয়ে নানাভাবে ফায়দা লুটবার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয় চেয়ারম্যান ডালিমের পিতা মোজাহার আলি একজন সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা। অথচ মাদকসেবী সুজন তার বিরুদ্ধেও নোংরা প্রচার দিয়ে যাচ্ছে। চেয়ারম্যান ডালিমের নামে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান তারা।
মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য রামপদ সানা, হোসেন আলি, বিপ্লব দাস,নীলকন্ঠ মন্ডল ,রবীন্দ্রনাথ সানা, আবদুল মান্নান মাস্টার ,আশীষ মন্ডল, উত্তম মন্ডল, বিমলকৃষ্ণ , নৃপেন সানা, শ্যামাপদ ঘোষ, পুলিন কুমার সরদার, জগদীশ চন্দ্র, বাপ্পী কুমার শীল প্রমূখ।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন