শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে কলারোয়ার ১ ব্যক্তির ৫ বছরের কারাদন্ড


মে ১৯ ২০১৮

কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়ায় ১০বছরের এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণ চেষ্টার দায়ে আলমগীর হোসেন ওরফে আলীম নামে এক ব্যক্তিকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদ- ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদ-ের আদেশ দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক হোসনে আরা আক্তার এ রায় ঘোষণা করেন। সাজাপ্রাপ্ত আসামি আলমগীর হোসেন ওরফে আলীম কলারোায়া উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের হায়েজ উদ্দীন সরদারের ছেলে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, বোয়ালিয়া গ্রামের আলমগীর হোসেন ওরফে আলীম একই গ্রামের ১০ বছরের এক শিশু কন্যাকে প্রায় সময়ই উত্ত্যক্ত করতো। বিগত ২০১০ সালের ২০ এপ্রিল রাতে আসামী আলমগীর হোসেন ওরফে আলীম তাকে একা পেয়ে মুখে গামছা বেঁধে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা ওই শিশু কন্যার বাবা বাদি হয়ে কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
দীর্ঘ পর্যালোচনা শেষে এ মামলায় ৫ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ ও নথি পর্যালোচনা করে আসামি আলমগীর হোসেন ওরফে আলীমের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদ- ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদ-ের আদেশ দেন।
এ মামলার রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবি সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট জহুরুল হায়দার বাবু বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ রায়ের সময় আসামি আলমগীর হোসেন ওরফে আলীম পলাতক ছিলেন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন