আন্তর্জাতিক সহায়তা না পাওয়া গেলে করোনা মহামারী মোকাবেলা গভীর সংকটে পড়বেঃ জাতিসংঘ


এপ্রিল ২৫ ২০২০

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারী সংকট মোকাবেলায় জাতিসংঘ এবং এর অন্যান্য সংস্থাগুলো আন্তর্জাতিক সাহায্য প্রাপ্তির ক্ষেত্রে চরম সংকটে পড়েছে। জাতিসংঘের পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিভিন্ন দেশ ও দাতা সংস্থার কাছে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় যে আর্থিক সহায়তা চাওয়া হয়েছিল তার এক-চর্তুথাংশও পাওয়া যায়নি এখনো পর্যন্ত। ফলে করোনা মহামারী মোকাবেলায় জাতিসংঘের যেসব কর্মসূচি রয়েছে তাও পড়েছে ঝুঁকির মুখে।
জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তেনি গুতেরেস গত ২৫ মার্চ কোভিড-১৯ তহবিলের জন্য ২শ’ কোটি ডলারের আন্তর্জাতিক সাহায্যের আবেদন জানালেও জাতিসংঘের ওয়েব সাইটের তথ্য মোতাবেক এই ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাহায্য মিলেছে মাত্র ৩৪ দশমিক ৭ শতাংশ, অর্থাৎ ৬৯ কোটি ৭০ লাখ ডলার।
করোনাকালীন সময়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতিসংঘের সংস্থা অর্থাৎ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডব্লিউএইচও এপ্রিল পর্যন্ত সহায়তা চেয়েছিল ৬৭ কোটি ৫০ লাখ ডলার। অথচ এ পর্যন্ত এ সাহায্য মিলেছে মাত্র ১১ কোটি ডলার। বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি বা ডব্লিউএফপি ৩৫ কোটি ডলার সাহায্য চেয়েছিল, এ পর্যন্ত পাওয়া গেছে মাত্র ২২ শতাংশ। ইউনিসেফ জানিয়েছিল করোনাকালীন সময়ে বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি শিশুকে সহায়তার জন্য ৬৫ কোটি ডলারের প্রয়োজন। অথচ এ পর্যন্ত তারা সাহায্য পেয়েছে ১১ কোটি ডলার। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর সহায়তা চেয়েছিল ২৫ কোটি ডলারের, অথচ সহায়তা পেয়েছে অনেক কম। এ কারণে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থাম যেমন- ডব্লিউএইচও, ইউএনএইচসিআর, ডব্লিউএফপি, ইউনিসেফসহ গুরুত্বপূর্ণ সংস্থাগুলোর প্রধানগণ এক আন্তর্জাতিক বিবৃতিতে গভীর ও সুস্পষ্ট শংকা প্রকাশ করে বলেছেন, আন্তর্জাতিক সহায়তা না পাওয়া গেলে করোনা মহামারী মোকাবেলা গভীর সংকটে পড়বে।
এদিকে, জাতিসংঘসহ এর সংস্থাগুলো কেনো আন্তর্জাতিক সাহায্য পাচ্ছে না- সে প্রসঙ্গে বাংলাদেশের প্রভাবশালী গবেষণা সংস্থা সিপিডি’র সম্মানীয় ফেলো এবং বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. মোস্তাফিজুর রহমান মনে করেন, অনেক দিন ধরেই দাতারা সাহায্য দিতে অনীহা দেখাচ্ছিল এবং তারা সাহায্য দেয়ার ক্ষেত্রে অবসাদগ্রস্ত।.

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন