সাতক্ষীরায় পৌঁছেছে সেনা বাহিনীর অগ্রগামী দল


মার্চ ২৪ ২০২০

প্রেস নোট: করোনো ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সিভিল প্রশাসনকে সহযোগিতার লক্ষ্যে সাতক্ষীরায় পৌঁেছছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি অগ্রগামী দল।

মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বেলা ১২টার দিকে লে. কর্নেল ফারহানের নেতৃত্বে যশোর ক্যান্টনমেন্ট থেকে সাতক্ষীরায় পৌঁছে অগ্রগামী দলটি জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সাথে কর্মপরিকল্পনা নিয়ে এক বৈঠকে মিলিত হয়। বৈঠকে করোনো ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব তৈরিতে সাধারণ মানুষকে বিনা কারণে ঘর থেকে বেরুনো রোধ ও বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণে এক যোগে কাজ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
বৈঠক সূত্র জানায়, সেনাবাহিনীর ২০০ সদস্যের একটি দল বুধবার থেকে মাঠে নামবে। প্রতি উপজেলায় নিয়োজিত থাকবে এক প্লাটুন সেনা সদস্য। প্রতিদিন সকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে সেনা সদস্যরা মাঠ পর্যায়ে কাজে নামবেন। এই বৈঠকের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল জেলাবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আমি বিশ^াস করি করোনো ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বৈশি^ক মহামারী রোধে সাতক্ষীরাবাসী সচেতনতার পরিচয় দিয়ে নিজ ঘরে আবদ্ধ থাকবেন। তারা অহেতুক ঘর থেকে বেরুবেন না এবং এমন কিছু করবেন না যাতে কঠোর হতে হয়। প্রয়োজন হলে এই ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়াত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. বদিউজ্জামান ও মেজর সাবের।

মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বেলা ১২টার দিকে লে. কর্নেল ফারহানের নেতৃত্বে যশোর ক্যান্টনমেন্ট থেকে সাতক্ষীরায় পৌঁছে অগ্রগামী দলটি জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সাথে কর্মপরিকল্পনা নিয়ে এক বৈঠকে মিলিত হয়। বৈঠকে করোনো ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব তৈরিতে সাধারণ মানুষকে বিনা কারণে ঘর থেকে বেরুনো রোধ ও বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণে এক যোগে কাজ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
বৈঠক সূত্র জানায়, সেনাবাহিনীর ২০০ সদস্যের একটি দল বুধবার থেকে মাঠে নামবে। প্রতি উপজেলায় নিয়োজিত থাকবে এক প্লাটুন সেনা সদস্য। প্রতিদিন সকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে সেনা সদস্যরা মাঠ পর্যায়ে কাজে নামবেন। এই বৈঠকের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল জেলাবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আমি বিশ^াস করি করোনো ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বৈশি^ক মহামারী রোধে সাতক্ষীরাবাসী সচেতনতার পরিচয় দিয়ে নিজ ঘরে আবদ্ধ থাকবেন। তারা অহেতুক ঘর থেকে বেরুবেন না এবং এমন কিছু করবেন না যাতে কঠোর হতে হয়। প্রয়োজন হলে এই ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়াত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. বদিউজ্জামান ও মেজর সাবের।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন