সাতক্ষীরায় হোম কোয়ারেন্টাইনে ১৬৯ জন ॥ বিদেশ ফেরত ৮ হাজার ৮৬৮ জন, তিন বিদেশ ফেরতকে জরিমানা ॥ এক জন আইসোলেশানে ভর্তি,


মার্চ ২০ ২০২০


করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে বিদেশ ফেরত আরো ৮২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে এ পর্যন্ত ১৬৯ জন বিদেশ ফেরতকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এছাড়া জেলার শ্যামনগর উপজেলার দাতনিখালী গ্রামের এসএম সুলতান মাহমুদ সুজনকে সদর হাসপাতাল আইসোলেশানে নেয়া হয়েছে। তবে, পুলিশের তথ্য অনুযায়ী গত ১৮ দিনে সাতক্ষীরায় ৮ হাজার ৮৬৮ জন বিদেশ ফেরত লোক এসেছেন। এদর বেশীরভাগই ভারতীয় নাগরিক। তাদের ব্যাপারে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে।
ইতিমধ্যে হোম কোয়ারেন্টিনে না থেকে ঘুরাঘুরি করার জন্য সাতক্ষীরার কামালনগরের মালদ্বীপ ফেরত কামরুজ্জামানকে ১০ হাজার টাকা, শ্যামনগরের গোপালপুরের কুয়েত ফেরত রঞ্জু ইসলামকে ৫ হাজার টাকা ও সদর উপজেলার ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের হাজিপুর গ্রামের ইটালী ফেরত মাহিদুর রহমানকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। তাদেরকে বাধ্যতামুলক ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে।
পুুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সাতক্ষীরায় ১ লা মার্চ হতে ১৮ মার্চ পর্যন্ত মোট ৮ হাজার ৮৬৮ জন লোক বিদেশ থেকে সাতক্ষীরায় এসেছেন।এদের প্রায় ৮০% এসেছেন ভারত থেকে।
জেলা পুলিশ ওই তালিকা অনুযায়ী সার্বিক খোঁজ নিচ্ছেন। বিদেশ ফেরত সবাইকে মনিটর করার সর্বোচ্চ চেস্টা করা হচ্ছে। বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল বলেন, করোনা ভাইরাসের কারনে সাতক্ষীরার শ্যামনগরের আকাশলীনা, দেবহাটার রূপসী ম্যানগ্রোভসহ সাতক্ষীরা জেলার সকল পর্যটন এলাকা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জনসাধারণকে পর্যটন এলাকায় না যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। একই সাথে জেলায় সকল ধরনের সভা সমাবেশ, সেমিনার, সামাজিক অনুষ্ঠানসহ সকল প্রকার গণজমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামুলক লিফলেট বিতরন ও জরুরি সভাসহ নানা কর্মসুচি হাতে নেয়া হয়েছে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন