সাতক্ষীরায় মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে দরিদ্রের সম্পত্তি দখল চেষ্টার অভিযোগ


জুলাই ২৮ ২০১৯

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
সাতক্ষীরার পরানদাহে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নাম করে কথিত টাউট হুজুর রবিউল কর্তৃক অসহায় এক ভ্যান চালকের পৈতৃক সম্পত্তি দখল চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে উক্ত সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সদর উপজেলার সোনারডাঙ্গি হরিসপুর গ্রামের মৃত মোজাহার দালালের পুত্র ভুক্তভোগী আতিয়ার রহমান।
তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি জগন্ন্াথপুর মৌজায় জে.এল নং-৪৪, এস এ ৭৩০ নং খতিয়ানে তিনটি দাগে ৪ শতক জমি বৈধ মালিক হিসেবে ভোগ দখল করে আসছিলাম। উক্ত জমিতে আমি মাটি ভরাট করে বসত বাড়ি তৈরী করি। কিন্তু সম্প্রতি মৃত আব্দুল ওহাব দালালের পুত্র ভুমিদস্যু টাউট হুজুর রবিউল ইসলাম ও আতর আলীর পুত্র আবুল হাসান গং জাল দলিল সৃষ্টি করে উক্ত বসত ভিটাটি দখল করে মাদ্রাসা ও এতিমখানা নির্মানের পায়তারা শুরু করেছে। ওই টাউট হুজুর এতটাই সুচতুর যে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে এতে যাতে কেউ বাধা না দেয় সেজন্য সে মাদ্রাসা নির্মানের নামে ওই জমি দখলের চেষ্টা চালাচ্ছেন। অথচ উক্ত সম্পত্তি ১৯৬৭-৬৮ সালের ২২৪ নং মোকদ্দমা সার্টিফিকেট বয়নামা মূলে জমির দখল পেয়ে আমি সেখানে সীমানা নির্ধারন করে ভোগ দখল করে আসছি। তিনি বলেন, আমি একজন অসহায় ভ্যান চালক হওয়ায় উক্ত হুজুর নামের ভুমিদস্যু আমার বসবাসের শেষ সম্বলটুকু মাদ্রাসা নির্মানের নামে দখলের পায়তারা চালাচ্ছেন এবং আমাকে খুন জখমের হুমকি প্রদর্শন করে যাচ্ছেন। শুধু আমার সম্পত্তি নয় হরিসপুর এলাকার অনেক হিন্দু সম্প্রদায়ের একাধিক নিরীহ মানুষের সম্পত্তি সে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে দখল করে যাচ্ছে। প্রতিবাদ করলে সে পুলিশকে ভুল বুঝিয়ে তাদের হয়রানির চেষ্টা চালায়। সে চরমোনাই পীরের মুরিদ পরিচয়ে একেরপর এক এই জমি দখল করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, এই শেষ সম্বলটুকু দখল করে নিলে আমার স্ত্রী সন্তান নিয়ে রাস্তায় রাত কাটাতে হবে। এমতাবস্থায় তিনি ভুমিদস্যু টাউট হুজুর রবিউলের কবল থেকে সম্পত্তি রক্ষা এবং তার জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।


শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন