তালার জালালপুর ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে প্রকাশে বাজেট ঘোষনা


জুন ৩ ২০১৯


তালা প্রতিনিধি ॥
স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্রকাশ্য বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময় ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের জন্য এক কোটি ১৭ লাখ ৪ হাজার ৪৭৮ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়। রবিবার (২ জুন) সকালে জালালপু ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে প্রকাশ্য এ বাজেট ঘোষণা করেন ইউপি চেয়ারম্যান এম. মফিদুল হক লিটু ।
ইউপি সদস্য শেখ আব্দুল রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম. মফিদুল হক লিটু।
জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মো.রুবায়েত হাসান পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য পারুল বিবি, সোনালী চৌধুরী,আবেদা বেগম, শেখ আব্দুল রাজ্জাক,আনারুল ইসলাম,কালিদাশ অধিকারী,আতিয়ার রহমান,শেখ মোস্তফা আলী,পলাম কুমার ঘোষ,মো. আশরাফুল আলম,মনিরুজ্জামান গোলদার প্রমুখ।

তালায় অসহায় মহিলাকে কুপিয়ে জখম
তালা প্রতিনিধি ॥
জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তালায় আকলিমা বেগম (৫২) নামের এক অসহায় বিধবাকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিবেশি লতিফ মোড়ল নামের এক দুর্বৃত্ত। সে উপজেলার জালালপুর গ্রামের মৃত দাউদ মোড়লের স্ত্রী। আকলিমা বেগম বর্তমানে তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
চিকিৎসাধীন আকলিমা বেগম জানান, স্বামী-সন্তান না থাকায় দীর্ঘদিন ধরে ৪ শতাংশ জমির উপর কোন রকমে বসবাস করে আসছিল সে। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে একই এলাকার মৃত সামছের মোড়লের ছেলে লতিফ মোড়ল গং তার বসত বাড়ির দখলের পায়তারা করে আসছে। সে প্রায়ই জমি জবর দখলের জন্য অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে আমার উপর বিভিন্ন ভাবে অত্যাচার নির্যাতন করে আসছে। হঠাৎ গতকাল রবিবার (২ জুন) সকালে তার সবত বাড়ি দখল নিতে যায় এ সময় আকলিমা বেগম বাধা দিলে তাকে কুপিয়ে জখম করে। তার মাথায় দাঁ দিয়ে কোপ মারতে গেলে হাত দিয়ে ঠেকাতে গেলে বাম হাতের দু’টি আঙ্গুল কেটে যায়। এ সময় স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে মূমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে তালা হাসপালে ভর্তি করে।
তালা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. রাজীব সরদার বলেন, আকলিমা বেগমের হাতের ক্ষত স্থানে ৫ টি সেলাই দেওয়া হয়েছে।
অভিযুক্ত লতিফ মোড়ল তার ধারলো অস্ত্রে হাত কাটার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এটা অমার অনিচ্ছায় ঘটে গেছে।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, ঘটনাটি শুনেছি তবে থানায় এখনো কেউ লিখিত কোন অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন