‘ফাতেমা’র শীষে হাজার ধান


এপ্রিল ২৯ ২০১৯


ফারুক হোসেন রাজ:

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে আমন মৌসুমে ‘ফাতেমা ধান’ এর বাম্পার ফলন হয়েছে। প্রতিটি শীষে (বালীতে) ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২৫টি পর্যন্ত ধান হয়েছে। ধানের অন্য জাতের তুলনায় উচ্চফলনশীল এ জাতে দ্বিগুনের বেশি ফলন হওয়ায় এর চাহিদা দিন-দিন বাড়ছে।

কলারোয়াউপজেলাকৃষিঅফিসসূত্রেজানাগেছে, আমন মৌসুমে পরীক্ষামূলকভাবে কলারোয়া উপজেলার ২০বিঘা জমিতে চাষ করা হয় উচ্চফলনশীল ‘ফাতেমাধান’।চাষেরশুরুতেপ্রতিকূলআবহাওয়াওপ্রাকৃতিকদুর্যোগকৃষকদেরদুশ্চিন্তারকারণহলেওপরবর্তিতেআবহাওয়াঅনুকূলথাকায়উৎপাদনলক্ষ্যমাত্রাছাড়িয়েছেধানেরএজাতটির।আগামীএকসপ্তাহেরমধ্যেপুরোদমেধানকাটাশুরুহবে।কৃষকদেরমাঝেএখনপ্রাকৃতিকদুর্যোগওশ্রমিকসংকটেরভয়।তারপরওতারাআশাকরছেনসবকিছুঠিকথাকলেএকথেকেদেড়সপ্তাহেরমধ্যেইকষ্টেরফসলতুলতেঘরেপারবেন।

‘ফাতেমা ধান’ ব্যাপক  সাড়াফেলেছেতারপ্রধানকারণএরএকটিশীষেধানপাওয়াগেছেএকহাজারএকশতপঁচিশটিরবেশি।দেশেবর্তমানযেসবজাতেরধানচাষহয়তারচেয়েএইধানেরফলনদ্বিগুণ।বাগেরহাটেরফকিরহাটউপজেলাবেতাগায়দেশেপ্রথম২০১৫-১৬মৌসুমেচুকুলিগ্রামেরকৃষাণীফাতেমাবেগমতারধানক্ষেতেএকগুছিতেতিনটিছড়াধানেরশীষপান।

একটিধানেরশিষেপ্রায়একহাজারদানারধানেনতুনস্বপ্নদেখাতেশুরুকরেনফাতেমা।ওইকৃষাণীরছেলেলেবুয়াতধানেরচারারোপণকরে.কেজিবীজধানসংগ্রহকরেন।যাএকশতকজমিতেবীজবপনকরে২০১৭১৮মৌসুমেপ্রায়৫০শতকজমিতেধানচারারোপণকরাহয়।সেখানথেকেইসারাদেশেধানেরযাত্রাশুরুহয়।ফাতেমাবেগমেরজমিতেএইধানেরপ্রথমচাষহওয়ায়ধানফাতেমাধাননামেপরিচিতিপেয়েছে।

ওইধানদেখতেকিনতেএখনকলারোয়ায়বিভিন্নএলাকাথেকেকৃষকরাভিড়জমাচ্ছেন।এমনকিঅনেকেধানকেনারজন্যঅগ্রিমঅর্থওদিয়েযাচ্ছেন।বীজহিসাবেধান৩শটাকাকেজিদরেবিক্রিরআশাকরছেনচাষীরা

কলারোয়ারহেলাতলাইউনিয়নেরঝাঁপাঘাটগ্রামেরআব্দুলখালেকশেখেরছেলেএইধানচাষীসোহাগহোসেনবলেন, কৃষিঅফিসেরমাধ্যমেবীজসংগ্রহকরেনিজেদেরজমিতেপ্রথমবারেরমতচাষকরি।আমারজমিতেঅনেকভালোফলনহয়েছে

সোহাগহোসেনেরজমিতেসরজমিনেগিয়েদেখাগেছে, বেশকিছুমানুষেরভীড়।কেউকেউযেজমিতেওইধানফলেছে, তাঘুরেদেখছে

চাষীসোহাগহোসেনজানান, অন্যধানেরমতোইসাধারণপরিচর্চাকরেন।জমিতেদুইদফায়ইউরিয়াএবংপটাশসারব্যবহারকরাহয়েছে।তবেএতেমাজরাপোকাআক্রান্তহয়অন্যধানেরতুলনায়বেশিযেজন্যদানাদাররোপনেরপরেইপরিমাণমতকীটনাশকছিটানোহয়েছে।অন্যজাতেরধানগাছেরচেয়েএইধানগাছঅনেকলম্বা।ধানেরশীষওঅনেকবড়।প্রতিটিশীষেএকহাজারথেকেএকহাজারএকশতপঁচিশটিদানাহয়।প্রাকৃতিকদূর্যোগনাহলেআমারআটকাঠাজমিতেপ্রায়৮শকেজিধানপাবেবলেআশাকরছেনচাষীসোহাগ

তিনিআরওজানান, আমারআটকাঠাজমিতেবীজসংগ্রহথেকেশেষপর্যন্তখরচহয়েছেহাজার৮শটাকা।এতেকুড়িমনধানহবেবলেআশাকরছি

যশোরেরবাঁগআচড়াথেকেধানেরবীজকিনতেআসাটিটুলইব্রাহীমজানান, মানুষেরমুখেমুখেশুনেতাঁরাঅধিকফলনেরআশায়বীজধানক্রয়করতেএসেছেন।চাষিরাসপ্তাহেরমধ্যেইধানকাটাশেষকরবেনবলেজানিয়েছেন।

উপজেলারহেলাতলাব্লকেরউপসহকারীকৃষিকর্মকর্তামো. আবুলহাসানবলেন, ওইধানরোপণকরারপরতাঁরাতত্ত্বাবধানকরেন।চাষিতাঁদেরপরামর্শঅনুযায়ীধানচাষকরেছেন।বীজপাতাতৈরিকরারপর১৫০থেকে১৫৫দিনেরমধ্যেধানকাটাযায়।ধানলবণসহনীয়।ফাতেমাধানরোপনেরসময়তিনটিকরেচারারোপনকরতেহয়।প্রতিটিচারারদৈর্ঘ্য১১৫থেকে১৩০সেন্টিমিটারকরতেহবে।ফলনপ্রতিহেক্টরে১১টনেরবেশি।মনেহচ্ছে, এইধানচাষকরেচষীরাখুবইলাভবানহবে।

উপজেলাকৃষিকর্মকর্তামহাসিনআলীবলেন, ‘ফাতেমাধানঅধিকউচ্চফলনশীলজাতেরধান।উপজেলার১৬টিকৃষকপরীক্ষামূলকভাবেপ্রথমবারেরমত২০বিঘাজমিতেচাষশুরুকরেসাফল্যজনকফলনপেয়েছেন।ভালোফলনহলেপ্রতিবিঘাতেপঞ্চাশমনধানআশাকরাযায়।স্বাভাবিকঅন্যান্যধানেরচেয়েধানেরএকটুপরিচর্যাবেশিকরতেহয়।কারণধানেমাজরাপোকারআক্রমণঅন্যধানেরতুলনায়বেশি।তবেসময়মতকীটনাশকপ্রয়োগকরলেভালোফলনপাওয়াসম্ভব

কৃষিঅফিসসূত্রেজানাযায়, উপজেলা১৬টিচাষিপ্রতান্তঅঞ্চলের২০বিঘাজমিতেওইধানচাষকরেছেন

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন