শ্যামনগরে দুই শিক্ষার্থীকে পাচারের অভিযোগ


এপ্রিল ২১ ২০১৯


নিজস্ব প্রতিবেদক :
শ্যামনগরের দুই শিক্ষার্থীকে পাচারের অভিযোগ উঠেছে। ওই শিক্ষার্থীরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের নাপিতখালী গ্রামের খোকার কন্যা রিফুজা খাতুন(১৪) এবং কুবাত আলীর কন্যা ছাদিয়া খাতুন। রিফুজা খাতুন চাদনীমুখা পিজে আলিম মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী এবং ছাদিয়া খাতুন নাপিতখালী প্রাইমারী স্কুলের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী।
শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে একই এলাকার হযরত আলীর কন্যা করুনা শিক্ষার্থী রিফুজা ও ছাদিয়া খাতুনকে নিয়ে চৌদ্দরশী লঞ্চে উঠতে দেখেন বলে জানিয়েছেন স্থানীরা। এরপর থেকে ওই দুই শিক্ষার্থী নিখোঁজ রয়েছে। এছাড়া চাঁদনীমুখা থেকে লঞ্চঘাট পর্যন্ত পৌছে দেন চাদনমুখা গ্রামের রুহুল আমিন গাইনের পুত্র আমিনুর। কারুনা ও আমিনুর একই সাথে বসে চা সিগেরেট খেয়েছেন বলে তারা জানান। এরপর থেকে আমিনুরের মোবাইল(০১৯৩৯৪৪৪৩৯০) নাম্বারটিও বন্ধ রয়েছে।
এদিকে শিক্ষার্থী রিফুজা খাতুনের মাতা মাফুজা জানান, শনিবার দুপুর ১ টার দিকে রিফুজা আমার মোবাইলে (০১৭০৭৫২৮৭৬৫ নাম্বারে) ফোন করে জানায় আজ(শনিবার) সন্ধ্যা ৬টার দিকে তাদের বিক্রয় করা হবে বলে হাওমাও করে কান্নাকাটি করতে। এরপরই করুনা তার কাছ থেকে মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এরপর থেকে তাদের আর কোন যোগাযোগ পাওয়া যাচ্ছে না। এঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছি। তিনি তার কন্যাসহ শিক্ষার্থীকে উদ্ধারের দাবিতে সাতক্ষীরা প্রশাসনসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এ বিষয়ে গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান জি এম মাসুদুল আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি শুনেছেন জানান।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন