মাসাধিক সময় চলে গেলেও চুকনগরে সাংবাদিকের চুরি হওয়া মটরসাইকেলটি উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ


এপ্রিল ১২ ২০১৯

শেখ আব্দুল মজিদ: এক মাসের অধিক অতিবাহিত হলেও চুকনগেরর কর্মরত সাংবাদিক শেখ আব্দুস সালামের চুরি হওয়া মটরসাইকেলটির কোন ক্লু উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে নানা শংঙ্কা দেখা দিয়েছে। মটরসাইকেল চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় চোর সেন্ডিকেটের এক সদস্য সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কিন্তু এক মাসের অধিক সময় অতিবাহিত হলেও আজও তার কোন ক্লু উদঘাটন হয়নি। প্রসঙ্গত গত ৬ মার্চ বুধবার বেলা পৌনে ১২ টার দিকে চুকনগরের কর্মরত সাংবাদিক শেখ আব্দুস সালামের নিজ ব্যবহৃত খুলনা হ ১২-৪৩১৬ নম্বর ডিসকভার ১২৫ সিসি কালো লাল রঙের মটরসাইকেলটি চুকনগর আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংকের নীচে জৈনক বাবলু সাহেবের মার্কেটের গলির ভিতর রেখে ২য় তলায় হোমল্যান্ড ইন্সুরেন্স অফিসে যায়। কিছুক্ষণ পর নিচে এসে দেখে মটরসাইকেলটি কে বা কাহারা লক তালা ভেঙ্গে চুরি করে নিয়ে গেছে। অনেক খোঁজাখুজির পর কোন সন্ধান না পেয়ে এ ঘটনায় অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামি করে ডুমুরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। যার নং ৫ তারিখ ০৬-০৩-২০১৯। যাহা সুষ্ঠু তদন্তের লক্ষ্যে খুলনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশে মামলাটি হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু অদ্যবধি চুরি হওয়া উক্ত মটরসাইকেলটির কোনো ক্লু উদঘাটন হয়নি। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এলাকায় সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী, মাদক সেবী, চুরি, ডাকাতি, চোরাকারবারি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধীদের বিরুদ্ধে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিক সালামের সাংবাদিকতা ব্যাহত করতে অপরাধ জগতের চিহ্নিত সদস্যরা ষড়যন্ত্র করতে থাকে। এক পর্যায়ে ঘটনার দিনে অপরাধীরা তার ব্যবহারিত মটরসাইকেলটি চুরি করে নিয়ে যায়। এ নিয়ে এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে নানা শংঙ্কা দেখা দিয়েছে। এ প্রসঙ্গে খুলনা জেলা পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ জানান, বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখার জন্য জেলা ডিবি পুলিশের ওসিকে বলব।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন