দেবহাটার স্বতন্ত্র প্রার্থীর ৭ কর্মীসমর্থককে আটক করায় থানা ঘেরাও করেছে আওয়ামালীগ নেতা-কর্মীরা


মার্চ ২২ ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি: দেবহাটা থানা ঘেরাও করেছে স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। শুক্রবার সকাল ৮টায় দেবহাটা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক স.ম গোলাম মোস্তফার সাতজন কর্মী-সমর্থককে গ্রেফতারের প্রতিবাদে তারা থানাও ঘেরাও করে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছে। থানা ঘেরাও কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট স.ম গোলাম মোস্তফা, দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নেওয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সখীপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফারুক হোসেন রতন, পারুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, কুলিয়া ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আসাদুল ইসলাম, দেবহাটা সদর ইউপির চেয়ারম্যান আবু বকরসহ আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট স.ম গোলাম মোস্তফা জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পুলিশ কোন কারণ ছাড়াই পারুলিয়া ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম, সখিপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম, ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি রায়হান, মনিরুল ইসলাম, আবুল কাশেম, রাজু আহম্মেদসহ ৭ জনকে আটক করেছে। তিনি বলেন, পুলিশ অন্যায়ভাবে কোন কারণ ছাড়াই ভোটের মাত্র দুদিন আগে নেতা-কর্মীদের আটক করায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে থানা ঘেরাও করেছে। তাদের না ছাড়া পর্যন্ত অবস্থান ধর্মঘট চলবে। এ ব্যাপারে দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা জানান, তারা নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে প্রচার প্রচারনা চালায় তাদের আটক করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, আটক ৭ জন সম্পর্কে যাচাই বাছাই শেষে ৫ জনের নামে কোন মামলা না থাকায় তাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে। এবং রাজু ও রায়হান নামের বাকী দুজনের নামে মামলা থাকায় তাদের চালান দেয়া হচ্ছে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন