ক্রাইস্টচার্চে হামলা করে এবা হত্যার ‘প্রতিশোধ’ নিলো বন্ধুকধারী


মার্চ ১৬ ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ শহরে আল নূর ও লিনউড মসজিদে হামলা চালানোর আগে হামলাকারীর ব্রেন্টন টেরেন্ট (২৮) ৭৩ পৃষ্ঠার ঘোষণাপত্রে ১৬ হাজার ৫০০ শব্দে এ হামলার কারণ ব্যাখ্যা করেন। সেখান বলা হয়েছে, এবা আকারলাউন্ড নামের ১২ বছরের সুইডিশ শিশুর কথা। ২০১৭ সালে স্টকহোমে ট্রাক হামলার সময় মারা যায় এবা। তিনি লিখেছেন, দুই বছর আগের এ ঘটনা নাটকীয়ভাবে আমার চিন্তায় পরিবর্তন নিয়ে আসে। সময়টা ছিল ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে মে। ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল ওই হামলার ঘটনা ঘটে। আমি এ সহিংসতার পর আর চুপ থাকতে পারিনি। কারণ পরিস্থিতি বদলে গিয়েছিল আর সে বদল এনেছিল এবা… স্কুল ছুটির পর এবা তার মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিল। প্রসঙ্গত, শুক্রবার জুমার নামাজের সময় দুইটি মসজিদে এ হামলার ঘটনা ঘটে। বেলা দেড়টার দিকে মসজিদে জুমার নামাজ শুরুর ১০ মিনিটের মধ্যে একজন বন্দুকধারী সিজদায় থাকা মুসল্লিদের ওপর গুলি ছুড়ে। এতে অন্তত ৪৯জন নিহত হন, নিহতদের মধ্যে তিন বাংলাদেশিও রয়েছেন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন