রামেরডাঙ্গায় সরকারি ১৬টি গাছ কাটা


জানুয়ারি ২৪ ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সদর উপজেলার রামেরডাঙ্গায় সরকারি ১৬টি গাছ ভাগবাটোয়ারার ঘটনায় আশ্বাস দেওয়া হলেও দৃশ্যমান কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। তবে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সার্ভেয়ার হাসান আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও ওই গাছগুলো তাদের আয়াত্তে না থাকায় জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে কোন পদক্ষেপ নেওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন তিনি।
এঘটনায় গত বুধবার সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তহমিনা খাতুন এবং সদর সহকারী কমিশনার(ভূমি) রনি আলম নুরকে বিষয়টি অবহিত করা হলে তারা দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন। কিন্তু এখনো পর্যন্ত ওই গাছ কাটার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে বা গাছ উদ্ধারের বিষয়টি কোন দৃশ্যমান পদক্ষেণ গ্রহণ করা হয়নি বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানান, ২০১৩ গাছ কেটেছিলো জামায়াত আর তার বিক্রয় করে অর্থআত্মসাথ করেছিল কতিপয় প্রভাবাশালীরা। সম্প্রতি আবারো সেই চক্রটি বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এখানে গাছ কাটার নেতৃত্বে থাকা আব্দুর রাজ্জাক নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে দাবি করলেও তিনি পূর্বে ছিলেন রাজাকার। যুদ্ধের পরে মুক্তিবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পন করে মুক্তিযোদ্ধা হন। যা জেলার প্রত্যক্ষ মুক্তিযোদ্ধারা অবগত আছেন। এলাকাবাসী অবিলম্বে ওই রাজ্জাকের শাস্তি এবং সরকারি গাছ উদ্ধারের দাবি জানিয়েছেন।
এবিষয়ে সাতক্ষীরা সহকারি কমিশনার (ভূমি) রনি আলম নুর বলেন, নায়েবকে পাঠানো হয়েছিল। নায়েব প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পর প্রতিবেদন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন