সাতক্ষীরায় কিশোরীদের আত্মরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।


জানুয়ারি ১৫ ২০১৯


নিজস্ব প্রতিনিধি। সাতক্ষীরায় কিশোরীদের আত্মরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরন বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে। এমপাওয়ারিং গালস্ সেল্ফ প্রোটেকশন এন্ড জাষ্টিস্ প্রকল্পের অংশ হিসাবে বেসরকরী উন্নয়ন সংগঠন গণসাক্ষরতা অভিযান ও রূপান্তর এর আয়োজনে এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস,এম মোস্তফা কামাল। রূপান্তরের প্রোগ্রাম ডিরেক্টর মোঃ শাহাদত হোসেন বাচ্চুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন রূপান্তরের নির্বাহী পরিচালক স্বপন কুমার গুহ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন এনজিও বিষয়ক ব্যুরো’র মহাপরিচালক (অতিঃসচিব) কে,এম আব্দুস সালাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক মন্ত্রী ডাঃ আফতাবুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) অনিন্দিতা রায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইলতুৎমিশ, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ। “সবার জন্য মানসম্মত শিক্ষা” নিশ্চিতকরণ, বিশেষ করে শিক্ষা ক্ষেত্রে ছেলে-মেয়ের সমতা অর্জনে সরকারের বহুমূখী উদ্যোগ ও বিনিয়োগের ফলে ইতোমধ্যে সর্বস্তরে শিক্ষায় মেয়েদের অংশগ্রহন বেড়েছে। কিশোরী বালিকাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করণে গণসাক্ষরতা অভিযানের সহায়তায় পাইলট ভিত্তিতে সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগরে রূপান্তর এর নেওয়া “হেল্ফ ডেস্ক” সরকারের গৃহিত উদ্যোগকে আরো জোরদার করতে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলা ডিজিটাল কর্ণারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি মোঃ আনিসুর রহিম, সনাক সদস্য প্রফেসর আব্দুল হামিদ, দৈনিক প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিনিধি কল্যাণ ব্যানার্জী, এনটিভি’র জেলা প্রতিনিধি এম, কামরুজ্জামান, স্বদেশের নির্বাহী পরিচালক মাধব চন্দ্র দত্ত, অগ্রগতি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক আব্দুস সবুর, জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনের এরিয়া ম্যানেজার ফিরোজ রহমান, ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স এর অফিস ইনচার্জ মোঃ শরিফুল ইসলাম, টিআইবি’র এরিয়া ম্যানেজার আবুল ফজল মোঃ আহাদ, রেডিও নলতা’র সেলিম হোসেন, মানবাধিকার কর্মী সাবিবুর রহমান বাবলা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন মানবাধীকার রক্ষায় এনজিওদের ভূমিকা রয়েছে অনেক বেশী । সরকারের পাশাপাশি মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় রয়েছে এনজিওদের যথেষ্ট সুনাম। অর্জন করেছে সাধারণ মানুষের ভালবাসা। আমাদের সমাজে কোন বিশৃঙ্খলা, অনৈতিক ও অসামাজিক কাজ করা যাবেনা, ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে সহায়তা করা আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব ও কর্তব্য। এছাড়া সামাজিক ব্যক্তিত্ব, জেলা প্রশাসন, রাজনৈতিক দল সবাই মিলে দেশ গড়ার জন্য বৃহৎ কর্মপরিকল্পনা করা প্রয়োজন। । এনজিওদের প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। অর্থের সঠিক ব্যবহার এবং স্বচ্ছতার সাথে কাজ করতে হবে। পর্যায়ক্রমে নারীদের অগ্রগতি বৃদ্ধিতে সহায়তা প্রদান করা হবে। স্বাধীনতা বিরোধী, মৌলবাদের মূল শক্তিকে চিরতরে ধ্বংস করা হবে সাতক্ষীরা থেকে। কিশোরীদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে শিক্ষা বিভাগের সাথে সমন্বয় করে মেয়েদের জন্য জেলা পর্যায়ে সেমিনারের আয়োজন করা দরকার। মেয়েদের ক্ষমতা পরিবার থেকে শুরু হওয়া দরকার। শিক্ষকদের মানষিকতার পরিবর্তনসহ শারীরিক পর্দার চেয়ে মানষিক পর্দার পরিবর্তন হওয়া অত্যান্ত জরুরী। এছাড়া বাবা-মায়ের সচেতনতার জন্য বিভিন্ন কৌশল তৈরি করা প্রয়োজন। নিজ নিজ অবস্থান থেকে শিশূদের জন্য সুরক্ষার ব্যবস্থা করতে এবং বখাটেদের উৎপাত বন্ধে প্রশাসনের সক্রিয়তা বৃদ্ধি একান্ত প্রয়োজন বলে অনেক বক্তারা অভিমত প্রকাশ করেন। সভার শুরুতে প্রকল্পের কার্যক্রম ভিডিও প্রজেক্টরের মাধ্যমে তুলে ধরেন গণস্বাক্ষরতা অভিযানের পরিচালক তাসনিম আতাহার।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন