বাংলার মমতাময়ী মা শেখ হাসিনার জন্য নৌকা প্রতিকে ভোট চাইবেন : জেলা যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি নাজমা আকতার


ডিসেম্বর ১১ ২০১৮


কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি নাজমা আকতার বলেন, ‘২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগে সাতক্ষীরা সিটি কলেজের প্রভাষক ছাত্রলীগ নেতা এবিএম মামুনকে কুপিয়ে হত্যা করেছিল জামায়াত-শিবিরের ক্যাডাররা। আমরা তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করি। বাংলাদেশের ভোটারের অর্ধেক ভোটার নারী। নারীদের বাদ দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার কোন সুযোগ নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের কল্যাণে নানামুখী কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। তিনি একজন মমতাময়ী মা, মানবতার মা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান। জাতির পিতার বড় কন্যা শেখ হাসিনা তাহাজ্জত নামাজ, কোরআন তেলাওয়াত ও ফজরের নামাজের মাধ্যমে প্রতিদিনের কর্মসূচি শুরু করেন। বাংলাদেশকে বিশে^র দরবারে আলোকিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন। আজ থেকে আপনারাও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিতে নৌকার পক্ষে কাজ করবেন। সাতক্ষীরা ২ আসনে প্রধানমন্ত্রীর মনোনিত প্রার্থী মীর মোস্তাক আহমেদ রবিকে নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে কাজ করবেন। ভোটের আর মাত্র ১৮দিন বাকি রয়েছে। আপনারা নারীরা বাংলার জনগণের মমতামী মায়ের জন্য সকলের কাছে নৌকার পক্ষে ভোট চাইবেন। শুধু আপনার একটি ভোট নয়, সময় পেলে দেশের উন্নয়নের জন্য সকলের কাছে ‘নৌকা’ প্রতিকে ভোট চাইবেন।’

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনায়তনে সাতক্ষীরা জেলা যুব মহিলা লীগের কর্মী সভায় কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি নাজমা আকতার এসব কথা বলেন। যুব মহিলা লীগ জেলা শাখার আয়োজনে কর্মী সভায় জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর ফারহা দীবা খান সাথী’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদ, জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি এমপি, জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদিকা সাবিহা হোসেন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন