সুপ্রভাত সাতক্ষীরা’র বর্ণাঢ্য আত্মপ্রকাশ


জুলাই ৩১ ২০১৮

 

 

ডেস্ক রিপোর্ট: সাতক্ষীরায় জমকালো আয়োজনে আলোকিত সমাজ বিনির্মাণের প্রত্যয়ে আত্মপ্রকাশ করলো নবীনতম দৈনিক সুপ্রভাত সাতক্ষীরা।
সোমবার (৩০ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৫টায় পলাশপোলে (চৌধুরী পড়া) সুপ্রভাত সাতক্ষীরা’র কার্যালয় চত্বরে পত্রিকাটির মোড়ক উন্মোচন করেন সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক শাহ আব্দুল সাদী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মাঈন উদ্দীন আহমেদ, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারী।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সুপ্রভাত সাতক্ষীরা’র সম্পাদক ও প্রকাশক এ কে এম আনিছুর রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ মীর মোস্তাক আহমেদ রবি বলেন, সুপ্রভাত সাতক্ষীরা নান্দনিকভাবে পথচলা শুরু করুক। জনগণকে নিয়ে ভাবুক। ভালো লেখা প্রকাশের মাধ্যমে সাতক্ষীরার আদর্শ মানের জায়গা বিশ্বের মাঝে তুলে ধরুক। কিছু কিছু কারণে উন্নয়ন বাঁধাগ্রস্ত হয়। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, সুপ্রভাত সাতক্ষীরা মিথ্যা সংবাদ পরিবশেন করবে না। মিথ্যা সমাজকে ধ্বংস করে দেয়।
স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক শাহ আব্দুল সাদী বলেন, সুপ্রভাত সাতক্ষীরা মানে গুড মর্নিং। আর গুড মর্নিং এর বিপরীতে গুড মর্নিংই বলতে হবে। তিনি পত্রিকার সম্পাদকের কাছে আশা প্রকাশ করে বলেন, কোন ধরণের ছাড় দেওয়ার মন মানসিকতা না রেখেই কাজ করতে হবে। আমি উদ্বোধনী সংখ্যা সংরক্ষণ করে রেখেছি। সাতক্ষীরার জলাবদ্ধতা নিয়ে সমাধান চাইলে এখানেই তা পাওয়া সম্ভব। পত্রিকাটি যেন জনগণের কথা বলে। আর তাতে যদি কেউ বিরাগভাজনও হয় তা যেন সুপ্রভাত সাতক্ষীরাকে থামাতে না পারে।
সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মঈনউদ্দিন সুপ্রভাত সাতক্ষীরার দীর্ঘায়ু কামনা করেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক সাংসদ মুনসুর আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সময়ে পত্র-পত্রিকার স্বাধীনতা প্রদান করেছেন। সকলের খারাপ কাজের পাশাপাশি যেন ভালো কাজের চিত্রও তুলে ধরা হয়। একই সাথে তিনি বলেন, সুপ্রভাত সাতক্ষীরা যেন সাতক্ষীরার সুপ্রভাত হয়।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু আহমেদ বলেন, আমরা বলি এক আর করি আর এক। সংবাদ মাধ্যমের উচিৎ হবে জনগণের পক্ষে থাকা। আর এটাই নিরপেক্ষ। পত্রিকার কাছে আশাবাদী হয়ে তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কথা তুলে ধরবে সুপ্রভাত সাতক্ষীরা। একই সাথে লেখনীর মাধ্যমে উন্নয়নের চিত্রও তুলে ধরার আহবান জানান তিনি।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারী বলেন, অনেকেই পত্রিকার ডিক্লারেশন নেয় ভালো সংবাদ পরিবেশনের নাম করে। কিন্তু পরবর্তীতে তা আর ধরে রাখে না। সংবাদ মাধ্যমকে নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে সহায়ক হিসেবে কাজে লাগায়। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, সুপ্রভাত সাতক্ষীরা জনগণের পক্ষে কাজ করে সঠিক আর সুন্দর সংবাদ পরিবেশন করবে।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সুভাষ চৌধুরী বলেন, শত ফুল ফুটতে দাও, শত সরোবর জন্ম নিক। তাহলেই আমরা ভালো থাকবো। তিনি আরও বলেন, যে পত্রিকা কোন ভালো সংবাদ দিতে পারে না সেটা কোন পত্রিকাই নয়। এছাড়া তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, সুপ্রভাত সাতক্ষীরা সমাজ আর জনগণের পরিবর্তনের আর ভালোর সংবাদ নিয়ে আসবে এটাই প্রত্যাশা।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মনিরুল ইসলাম মিনি বলেন, যে উদ্দেশ্যে আর যে আকাক্সক্ষা নিয়ে সুপ্রভাত সাতক্ষীরার উদয় হলো তা যেন প্রস্ফুটিত হয়। গণ মানুষের কথা যেন এই পত্রিকার মাধ্যমে উঠে আসে। একই সাথে তিনি সুপ্রভাত সাতক্ষীরার দীর্ঘায়ু কামনা করেন।
সময় টেলিভিশনের মমতাজ আহমেদ বাপী বলেন, সূর্য যেমন অন্ধকার কাটায়, ঠিক তেমনি সুপ্রভাত সাতক্ষীরা তার লেখনীর মাধ্যমে সমাজের অন্ধকার দূর করবে। আলো ছড়াবে চতুর্দিক।
সুপ্রভাত সাতক্ষীরার সম্পাদক ও প্রকাশক একেএম আনিছুর রহমান স্বাগত বক্তব্যে বলেন, নতুন ধারার দৈনিক হিসেবে সুপ্রভাত সাতক্ষীরার মানুষের মনে স্তান করে নেবে। এই পত্রিকার সকল বিষয়ে সকলের পরামর্শ ও দোয়া কামনা করে তিনি আরও বলেন, এই পত্রিকার মাধ্যমে উঠে আসবে সমাজের কথা। জনগণের কথা। একই সাথে পত্রিকার গুণগত মান উন্নয়নে রিসার্চ সেল গঠন করা হবে।
এদিকে, ঢাকা ব্যাংক সাতক্ষীরা শাখার এভিপি ও ব্যবস্থাপক হুমায়ুন কবীর সুপ্রভাত সাতক্ষীরার সম্পাদককে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। একই সাথে আত্মপ্রকাশের দিনে সুপ্রভাত সাতক্ষীরাকে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন সাতক্ষীরা কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল হামিদ, এনএসআইয়ের উপ-পরিচালক মোজাম্মেলক হক, জেলা নাগরিক কমিটির আহবায়ক আনিসুর রহিম, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুল কাদের, প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আবুল ওয়াজেদ কচি, সাংবাদিক ড. দিলীপ দেব, সাপ্তাহিক ইচ্ছে নদী সম্পাদক মকসুমুল হাকিম, সূর্যের আলো সম্পাদক পল্টু চৌধুরী, জাসদ নেতা ওবায়দুস সুলতান বাবলু, সাতক্ষীরা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান মিল্টন, বিশিষ্ট চিত্র শিল্পী এমএ জলিল, সাহিত্যিক গাজী শাহজাহান সিরাজ, মনিরুজ্জামান ছট্টু, শুভ্র আহমেদ, পল্টু বাসার, সঙ্গীত শিল্পী মুনজুরুল হক, আবু আফফান রোজ বাবু, জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জো¯œা দত্ত, স্বদেশ পরিচালক মাধব দত্ত, শিক্ষক নেতা মোবাশ্বেরুল হক জ্যোতি, জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হারুণ অর রশিদ, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান, সাতক্ষীরা পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরিচালক কাজী আলাউদ্দীন ফারুকী প্রিন্স, জনতা ব্যাংক তালা উপজেলা শাখার ব্যবস্থাপক মো. শাহিনুর রহমানসহ সামাজিক-সাংস্কৃতিক-রাজনৈতিক-স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এর আগে সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি অন্যান্য অতিথিদের নিয়ে মাউস ক্লিক করে সুপ্রভাত সাতক্ষীরার অনলাইন ভার্সন ও মোড়ক উন্মোচন করে সুপ্রভাত সাতক্ষীরার প্রিন্ট ভার্সন উদ্বোধন করেন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন