কালিগঞ্জে তুচ্ছ কারণে পিতা-পুত্রকে পিটিয়ে গুরুতর জখম, জিনিসপত্র ভাঙচুর


জুন ২৭ ২০১৮

 

কালিগঞ্জ ব্যুরো: কালিগঞ্জে তুচ্ছ কারণে শত্রুতার জের ধরে পিতা-পুত্রকে মারপিট করে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। এসময় ভাঙচুর করা হয়েছে বাড়ির জিনিসপত্র। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার তারালী ইউনিয়নের বাথুয়াডাঙ্গা গ্রামে।
থানায় দাখিলকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাথুয়াডাঙ্গা গ্রামের আব্দুস সাত্তার গাজীর ছেলে মিনারুল ইসলামের (২১) সাথে প্রতিবেশী সাঈদ খাঁর ছেলে আনিচ (২২) ও ইউনুচ আলীর (১৮) তুচ্ছ কারণে সামান্য বিরোধ সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে এলাকায় বখাটে হিসেবে পরিচিত আনিচ বিভিন্ন সময়ে মিনারুল ও তার পরিবারের সদস্যদের অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজসহ খুনজখমের হুমকি প্রদর্শন করছিল। এক পর্যায়ে বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে আনিচ, ইউনুচ আলী, তাদের পিতা সাঈদ খাঁ (৪৫) ও একই গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে সেলিম গাজী (৩২) লাঠি, শাবল, রড নিয়ে আব্দুস সাত্তার গাজীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর শুরু করে। এঘটনার প্রতিবাদ করলে তারা আব্দুস সাত্তার গাজী ও তার ছেলে মিনারুল ইসলামকে বেধড়ক মারপিট করে জখম করে। তাদের রক্ষা করতে যেয়ে আহত হন আব্দুস সাত্তার গাজীর স্ত্রী রাবেয়া খাতুন (৪২)। প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় আবারও তাদের উপর হামলা চালানো হয়। গুরুতর আহত আব্দুস সাত্তার গাজী ও মিনারুল ইসলাম বর্তমানে কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এঘটনায় রাবেয়া খাতুন বাদী হয়ে ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন