কাজী নজরুল ইসলাম ছিলেন সাম্য ও মানবতার কবি


মে ২৭ ২০১৮

শহর প্রতিনিধি: ‘জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম ছিলেন অসাম্প্রদায়িকতার শ্রেষ্ঠ কবি। তিনি স্বভাবকবি, হৃদয়নির্ভর, রোমান্টিক কবি। তিনি সফল কবি-পুরুষ। তার জন্য বাঙালি মুসলমানরা পেল বাংলা সাহিত্যের যোগ্য অংশীদারিত্ব। বাঙালি পেল সর্বকালের শ্রেষ্ঠ নিরপেক্ষ ব্যক্তিত্ব। কাজী নজরুল ইসলাম ছিলেন সাম্য ও মানবতার কবি। কবি নজরুল ইসলাম কবিতা, গান, গজল ও নাটকের মাধ্যমে মানুষের কল্যাণের কথা বলেছেন’।
গতকাল জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় অতিথিবৃন্দ এ কথা বলেন। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভার আয়োজন করে জেলা প্রশাসন, জেলা শিল্পকলা একাডেমী ও জেলা সাংস্কৃতিক পরিষদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন।
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) তরফদার মাহমুদুর রহমান, এডিএম অনিন্দিতা রায়। আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সহকারি অধ্যাপক অলিউর রহমান, তালা সরকারি কলেজের সহযোগি অধ্যাপক আশুতোষ সরকার, সহকারি অধ্যাপক মো. সিরাজুল ইসলাম।
এসময় উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ আব্দুল হামিদ, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু, জেলা তথ্য অফিসার মোজাম্মেল হক, জেলা সাংস্কৃতিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হেনরী সরদার, আবৃত্তিকার মনিরুজ্জামান ছট্রু, কষ্ঠশিল্পী শামীমা পারভীন রত্মা, কণ্ঠশিল্পী আবু আফ্ফান রোজ বাবু, শামীমা পারভীন রত্মা, মনজুরুল হক, মো. শহিদুল ইসলাম, তৃপ্তি মোহন মল্লিক, পল্টু বাশার, চৈতালী মুখার্জী, মণ¥য় মনির, শেখ হারুন উর রশিদ প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন এনডিসি মোশারেফ হোসাইন ও জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সদস্য সচিব শেখ মোশফিকুর রহমান মিল্টন।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন