দেবহাটার বহেরা এটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বখাটেদের উৎপাতে অতিষ্ট শিক্ষার্থীরা


মে ৯ ২০১৮

শিক্ষাঙ্গন প্রতিনিধি, দেবহাটা: স্কুলেগামী ছাত্রীদের উত্যাক্ত করা, তাদের দিকে বাজে অঙ্গভঙ্গি করা, শিস দেওয়াসহ বিভিন্ন ধরনের বাজে মন্তব্য করার মত ঘটনা দেবহাটার বহেরা এটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কুলের আশেপাশে এখন নিয়মিত ব্যাপার।
বিদ্যালয়টির আশপাশে এখন প্রতিদিনই লক্ষ্য করা যায় বখাটেদের আড্ডা। এদের বেশির ভাগই মাদকাসক্ত। বখাটেরা স্কুল-কলেজের ছাত্রীদের প্রেমের প্রস্তাব দেওয়াসহ নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছে। এদের হাত থেকে রক্ষা পেতে অনেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া বন্ধ করে দেয় নতুবা অন্য স্কুল বেছে নিচ্ছে। এ অবস্থায় ছাত্রীরা অসহায়, উদ্বিগ্ন তাদের অভিভাবকরা। ইভটিজারারা হয়ে উঠছে বেপরোয়া। তাদের শিকার হয়ে মেয়েরা অনেক সময় আত্মহননের পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়। ইভটিজিং প্রতিরোধে আইন থাকলেও তার বাস্তবায়নের অভাবে কমছে না ইভটিজিং। সকাল হলেই বখাটেদের দেখা যায় স্কুলের সামনে। সকাল ৯টা থেকে ক্লাস থাকলে ৮টার মধ্যে বখাটেরা স্কুলের সামনে চলে আসে।
কয়েকদিন আগে ৮ম শ্রেণী ও ১০ শ্রেণীর দুইজন ছাত্রী কুলিয়া থেকে স্কুলে আসার সময় কয়েক জন বখাটে মোটরসাইকেল যোগে এসে তাদেরকে উত্ত্যক্ত করতে থাকে। স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। প্রতিদিন কোন না কোন বহিরাগতদের আগমন ঘটছে এই স্কুলের সামনে। এ বিষয়ে কয়েকজন অভিভাবক অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদিন স্কুলে যাওয়ার সময় কিছু বাজে ছেলেরা আমাদের মেয়েদেরকে বিরক্ত করে। বখাটেদের জন্য মেয়েদের স্কুলে একাকী যাওয়ার উপায় নেই।
বিষয়টি নিয়ে বহেরা এটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব ইমাদুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি বিষয়টি শুনেছি এবং বলেছি যে, স্কুল চলাকালীন সময়ে স্কুলের আশপাশে বিনা কারণে কোন স্থানীয় বা বহিরাগত ছেলেরা আসতে পারবে না। যদি কেউ এসে অশোভনীয় আচরণ করে তাহলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। কোন অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটার আগেই বখাটেদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সুধীজন ও অভিভাবকবৃন্দ।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন