কাশিমাড়ীতে কৃষকলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে দলীয় কার্যালয় বিক্রির অভিযোগ


এপ্রিল ২৩ ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে দলীয় কার্যালয় বিক্রয়ের অভিযোগ উঠেছে শ্যামনগর উপজেলার কাশিমাড়ী ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে। এঘটনায় ইউনিয়ন কৃষকলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। কাশিমাড়ী ইউনিয়ন কৃষকলীগের একাধিক নেতাকর্মীরা জানান, বিগত কয়েকবছর পূর্বে কৃষকলীগ নেতাকর্মীদের বসার জন্য একই এলাকার আশরাফুল গাজী ২০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৫ ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট এক খ- জমি দান করেন। সে অনুযায়ী উক্ত স্থানে ঘর নির্মাণ করে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন তারা। কিন্তু সম্প্রতি বর্তমান ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে উক্ত অফিসের আর্ধেকাংশ জয়নগর এলাকার মোকছেদ আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান হবির কাছে বিক্রিয় করেছেন। ইতোমধ্যে হবি সেখানে পাকা ভিত্তি নির্মাণ সম্পন্ন করেছেন বলে জানা গেছে। নেতাকর্মীরা আরো জানান, বর্তমান সভাপতি রাজ্জাক দলীয় প্রভাব বিস্তার করে অত্র এলাকার সাধারণ মানুষকে অতীষ্ট করে তুলেছে। বিভিন্ন ভাবে সাধারণ মানুষের জমি জাল করে দখল করাসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। যে কারণে তিনি অত্র এলাকায় জাল রাজ্জাক হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন।
এ ঘটনায় ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাকের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি অফিস বিক্রয় করিনি। অফিসটি জরাজীর্ণ হয়ে গেছে। সে কারণে হবি নিজ খরচে সেখানে ২টি পাকা ঘর নির্মাণ করবে একটিতে আমরা দলীয় কার্যক্রম চলাবো, অন্যটিতে হবি ব্যবসা পরিচালনা করবেন। এঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে একটি মহলের অফিস বিক্রির মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছেন।
অফিস ক্রেতা হবি’র সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি অফিস ক্রয় করিনি। সভাপতির শর্ত অনুযায়ী আমার খরচে ২টি ঘর করে একটিতে তাদের অফিস হবে অন্যটিতে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হবে।
ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আঃ রহিম বলেন, সভাপতি নিজের ক্ষমতায় অফিসটির অর্ধেক বিক্রিয় করেছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি। তিনি আমাদের কোন ভাবেই গুরুত্ব দিচ্ছেন না। এ নিয়ে ইউনিয়ন কৃষকলীগের অন্যান্য নেতাকর্মীদের সাথে সভাপতির বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন