চরম অবহেলায় সাতক্ষীরা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড


মার্চ ২৩ ২০১৮

শহর প্রতিনিধি: চরম অবহেলিত সাতক্ষীরা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড। নাগরিক সুবিাধা ভোগের ক্ষেত্রে ইউনিয়নের ওয়ার্ডের চেয়ে যেন একধাপ পিছেয়ে পৌরসভার এই ওয়ার্ডটি।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, গত ১ যুগেও সংস্কার হয়নি এ ওয়ার্ডের আমতলা মোড় থেকে কুখরালী দাক্ষিণ পাড়া জামে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তাটি। নেই পানির লাইন। রোড লাইটেরও সংকট, যেকটি রোড লাইট আছে তাও ঠিকমত জলেনা। পৌরসভার এ ওয়ার্ডে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ অবস্থিত হওয়ায় এবং কয়েকশত চিংড়ি ঘের থাকার কারণে প্রতিনিয়ত এ ওয়ার্ডে বহু মানুষের যাতায়াত। রাস্তার বেহাল দশার কারণে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হয় এখানে আগত জনসাধারণের।

এ বিষয়ে কুখরালি গ্রামের আব্দুস সামাদের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমতলা মোড়থেকে কুখরালী দাক্ষিণ পাড়া জামে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তাটি গত ১৫ বছরেও সংস্কার করা হয়নি। এতে এলাকার মানুষের চলাচলে খুব অসুবিধা হয়। রাস্তার মধ্যে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে যার ফলে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা।

একই গ্রামের কৃষক আবুবক্কর বলেন, ‘ভোটের সময় সবাই আমাদের খোজ নিতে আসে বলে পাশ করতে পারলে রাস্তা ঠিক করে দেব, পানির লাইন দেব। অথচ ভোটের পরে কোন নেতাকে আর পাওয়া যায়না। তিনি আরও বলেন, আমরা পৌরসভার বাসিন্দা, ঠিক মত পৌরসভার কর দেই কিন্তু পৌরসভার সেবা পাইনা। আমাদের ৬নং ওয়ার্ডে কোন পানির লাইন নেই, দুএকটা রোড লাইট থাকলেও তা ঠিক মত আলো দেয়না। আমাদের এখানে বাইরের কোন লোক আসলে মনে করে এটা একটি ইউনিয়ন। আমাদের চেয়ে এখন ইউনিয়নের লোক অনেক ভালো সেবা পাই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, ‘আমাদের ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ভোটের পরে নিজের বাড়ির রাস্তাটি ঠিক করেছে। তিনি তার ঘের আর ব্যাবসা নিয়ে ব্যাস্ত থাকে আমাদের খোজ-খবর নেওয়ার সময় তার কাছে নেয়।

এদিকে টাবরারডাঙ্গী এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জানান, বর্ষাকাল আসলেই আমাদের ঘর-বাড়ি হাটু পানিতে ডুবে যাই। এর পেছনে কিছু অসাধু ঘের মালিকের ঘেরে অবৈধ নেট পাটা দেওয়াকে দায়ী করছেন তারা। এলাকাবাসীর দাবি পৌরসভার বাসিন্দা হয়ে যে সুযোগ সুবিধা পাওয়া উচিত সেগুলো তারা যেন পান সে ব্যাপারে কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন