সাতক্ষীরার মাটি থেকে জঙ্গি সন্ত্রাসী ও মাদকের মূল শিকড় উপড়ে ফেলা হবে-পুলিশ সুপার


মার্চ ১৩ ২০১৮

কলারোয়া প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার মাটি থেকে জঙ্গী সন্ত্রাসী ও মাদকের মূল শিকড় উপড়ে ফেলা হবে। বাল্য বিবাহ, শিশু নির্যাতন ও ইভটিজিংকারীদের চিহ্নিত করে শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। মঙ্গলবার বিকালে কলারোয়ার বামনখালী বাজারে জঙ্গী ও মাদক বিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, মাদক এখন সমাজিক ব্যধ্যিতে পরিণত হয়েছে। এটা আমাদের যুব সমাজকে ধংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। এমন অবস্থা চলতে থাকলে সমগ্র দেশ একদিন মেধাশুণ্য হয়ে পড়বে। তাই প্রতিটি পরিবার থেকে মাদক বিরোধী সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

পুলিশের উদ্যেশ্যে তিনি বলেন, কোন পুলিশ সদস্যকে মাদকের সাথে সম্পৃক্ত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাকে চাকরি ছেড়ে বাড়ি যেতে যেতে হবে। আইনের মাধ্যমে তাকে শাস্তির আওতায় আনা হবে। পুলিশ সুপার বলেন, পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ এটা কর্মদক্ষা দিয়ে প্রমাণ করতে হবে।

কর্মক্ষেত্রে সততার সাথে জনগনের আস্থা অর্জন করতে হবে। সেবামূলক মানসিকা নিয়ে মানুষের পাশে থাকতে হবে। হাত পেতে ঘুষ নেয়া সহ্য করা হবে না। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার নাথ। সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ।

অন্যান্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন সদর সার্কেল, কলারোয়া মুক্তিযোদ্ধা সংসাদের কমান্ডার মো. গোলাম মোস্তফা, ১২ নং যুগীখালী ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল হাসান, ১ নং জয়নগর ইউপি চেয়ারম্যান শামছুদ্দীন আল মাসুদ বাবু, চন্দনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম মনি, কলারোয়া পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি মনোরঞ্জন সাহা, কলারোয়া জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রব প্রমুখ।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন