আইসিটির বিকাশে বেসরকারি উদ্যোক্তাদের ভূমিকা নিতে হবে: স্পিকার


ফেব্রুয়ারি ১ ২০১৭

এসবিনিউজ ডেস্ক : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের অর্থনৈতিক সম্ভাবনা সম্পর্কে যারা এখনও পরিচিত নন তাদেরকে উৎসাহিত করতে বেসরকারি উদ্যোক্তাদের ভূমিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭’-র উদ্বোধনী বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান।

দেশে সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন বেসিস আগামী শনিবার পর্যন্ত চারদিনব্যাপী এই মেলার আয়োজন করেছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত এই মেলা চলবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্পিকার বলেন, “আইসিটি খাতের রপ্তানি সম্ভাবনার সঙ্গে দেশের বাজারেও এর প্রসার ঘটাতে হবে। এজন্য সাধারণ জনগণকে প্রশিক্ষণ দিতে হবে। ক্যারিয়ার হিসেবেও এর সম্ভাবনাকে শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরতে হবে।”

আইসিটি অগণিত মানুষকে ক্ষমতায়িত করতে পারে বলেও মন্তব্য করেন স্পিকার।

“প্রত্যেকের জীবনকে এটা প্রভাবিত করে। এই খাতকে অর্থনৈতিক উন্নয়নের ইঞ্জিন হিসেবে বিবেচনা করে এগিয়ে নিতে হবে।”

এ খাতের বিকাশে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যেগের সমন্বয়ের ওপরও জোর দেন শিরীন শারমিন। তিনি এজন্য আইন-বিধি, নিয়মকানুন, কাস্টমসকে আরও ব্যবসাবান্ধব হওয়ার পরামর্শ দেন।

স্পিকার বলেন, সরকার আইসিটি খাতের গুরুত্ব অনুধাবন করছে; সেজন্যেই সুষ্ঠুভাবে এর সমন্বয় করছে।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তৈরি পোশাক খাতের নগদ প্রণোদনার মতো আইসিটি খাতেও প্রণোদনা দেওয়ার দাবি জানান। তিনি সরকারের কাছে আইটি খাতে ২০ শতাংশ ক্যাশ ইনসেনটিভ দেওয়ারও দাবি করেন।

তথ্য প্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কর্মসূচির বর্ণনা দিয়ে পলক বলেন, “একসময় বাংলাদেশ ছিল দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ। আইটি ব্যববহার করে সেই দুর্নীতি আমরা কমিয়ে এনেছি।”

বেসিস সভাপতি মোস্তফা জব্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশীর কবীর, বেসিসের পরিচালক সৈয়দ আলমাস কবীর।

 

 

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন