এক চোখে হলেও পৃথিবীর আলো দেখতে চায় সাতক্ষীরার আবু সাঈদ


নভেম্বর ২১ ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি :রাত কিংবা দিন খবরের সন্ধানে ছুটে চলা তরতাজা যুবক আজ অন্ধ হতে বসেছে। অর্থের অভাবে উন্নত চিকিৎসা করাতে না পেরে ইতোমধ্যে একটি চোখ পুরোপুরি নষ্ট হয়েছে গেছে। অন্যটির অবস্থাও ভালো না।
অথচ মাত্র কয়েক বছর পূর্বেই সাতক্ষীরা জেলা শহরের এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ক্যামেরা ঘরে নিয়ে ছুটে চলতেন তিনি। রাত কিংবা দিন খবরের সন্ধানেই ছুটতেন। দু চোখে সুন্দর কিছু দেখলেই তা তুলে ধরতেন দর্শকদের সামনে। সামান্য কয়েক বছরের ব্যবধানে সেই দুচোখে শুধুই অন্ধকার দেখেন এক সময়ের সাতক্ষীরার ক্যামরা পার্সন আবু সাঈদ মো: পারভেজ আনোয়ার।
তিনি সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল তেতুলতলা গ্রামের মৃত. আইয়ুব আলীর জ্যেষ্ঠপুত্র।
তার পিতা সাতক্ষীরা ডিসি অফিসের রাজস্ব শাখার দপ্তরি পদে কর্মরত ছিলেন।
ক্যামেরা ম্যানের চাকুরি ছেড়ে গত কয়েকবছর পূর্বে যোগ দিয়েছিলেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার অপারেটর পদে। কিন্তু চোখের অবস্থা ক্রমশ খারাপ হওয়ায় চাকুরিটিও চলে যাওয়ার অবস্থায় রয়েছে।
ইতোমধ্যে চোখের চিকিৎসা করাতে সঞ্চিত সমুদয় অর্থ ব্যয় করেছে। হয়েছেন অনেক টাকা ঋণ। ডান চোখে বর্তমানে তিনি কিছুই দেখতে পান না। বাম চোখ দিয়ে কিছুটা দেখতে পেলেও দ্রুত উন্নত চিকিৎসা করাতে না পারলে সেটিও নষ্ট হয়ে যেতে পারে। কিন্তু উন্নত চিকিৎসা করাতে প্রায় ৫লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। যা দরিদ্র আবু সাঈদের পক্ষে জোগাড় করা অসম্ভব।
সকলের সম্মিলিত সহযোগিতা পেলে হয়তো একটি চোখে হলেও পৃথিবীর আলো দেখতে পাবে আবু সাঈদ। তার সু-চিকিৎসার জন্য সকলের সম্মিলিত সাহায্য কামনা করেছেন তিনি। তাকে সাহায্য পাঠাতে ০১৭১৭ ৮০৯৫২৭ (বিকাশ) অথবা ফাস্টসিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক সাতক্ষীরা শাখার একাউন্ট নং- ১৪৬১২৬০০০০০১৮৩। এছাড়া সরাসরি সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল তেতুলাস্থ আবু সাঈদের নিজস্ব বাড়িতে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন