মুকুলের কারনে মানষিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে পরিবার ফিরে পেল


সেপ্টেম্বর ৮ ২০২০

শ্যামনগর উপজেলার নুরনগরে গতকাল ৬ই সেপ্টেম্বর রবিবার সন্ধ্যা আগত সময়ে নিজের প্রতিষ্ঠান সামনে একজন দাড়ি টুপিওয়ালা পাঞ্জাবি পরিহিত মাজবয়সি মানুষটিকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে তাকে জিজ্ঞাসা করেন, চাচা বাড়ি কোথায়? এরপর কিছু সময় কথোপকথন এর মধ্য দিয়ে সে বুঝতে পারে মানুষটি লেখাপড়া জানা মানসিক ভারসাম্যহীন একজন ব্যক্তি। এছাড়া ব্যক্তিটি মানসিক ভারসাম্যহীন হলেও অতি সুন্দর ভাবে কোরআন তেলাওয়াত করছিলেন। এক পর্যায়ে তার কাছ থেকে ঠিকানা সংগ্রহ করার চেষ্টা করা হলে। সে নিজের নাম বলে আব্দুল জলিল মালী পিতা মোঃ ইসহাক মালী, গ্রামঃ ডাঙ্গা নলতা, থানাঃ তালা, জেলাঃ সাতক্ষীরা। তাৎক্ষণিক রবিউল ইসলাম মুকুল উক্ত বিষয়টি তালা থানার অফিসার ইনচার্জ মহোদয় কে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অবহিত করেন এবং অফিসার ইনচার্জ মুকুলকে জানান, এই মর্মে অত্র থানায় একটি মিসিং ডায়েরী নথিভূক্ত আছে যার নং-১০৬১/তাং-৩১/০৮/২০ ইং। তালা থানার ওসি মহাদয়ের প্রচেষ্টায় মিসিং ডায়েরীতে প্রদত্ত মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগের মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষটির পরিবারের সদস্যদের অবগত করলে। গতকাল রাত্র বারোটার দিকে হারিয়ে যাওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন আব্দুল জলিলকে, রবিউল ইসলাম মুকুল সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং বিভিন্ন পত্রিকায় কর্মরত সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে তার পরিবারের সদস্যদের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে। হস্তান্তর ক্ষণে রবিউল ইসলাম মুকুলের কাছে তার অনুভূতি জানতে চাইলে সে বলেন, আমাদের চারপাশে রাস্তাঘাটে ঘুরে বেড়ানো মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষগুলো কোন না কোন পরিবারের সদস্য তাই তাদের প্রতি সবসময়ই মানবিক আচরণ করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন