ঈদের দিন হতে পারে হালকা বৃষ্টি


আগস্ট ১৯ ২০১৮

মশাল ডেস্ক: দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা বা কুরবানির ঈদ জিলহজের ১০ তারিখ অর্থাৎ ২২ আগস্ট (বুধবার) উদযাপিত হবে। আর তিনদিন মাত্র বাকি আছে ঈদের। তীব্র গরম পড়ছে, তার মধ্যে আবার আকাশ ঢেকে যাচ্ছে কালো মেঘে। কখনও ঝুম বৃষ্টি। কিন্তু এই বৃষ্টিতে তাপমাত্রা কমছে না। তাপমাত্রা প্রতিদিন উঠানামা করছে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপও সৃষ্টি হতে পারে। তার উপর নির্ভর করছে কুরবানি ঈদের দিনসহ আগামী কয়েকদিন বৃষ্টি হওয়া না হওয়া। তবে ঈদের দিন হালকা বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেদিন রোদ এবং তাপমাত্রাও বেড়ে যাবে কিছুটা।

শনিবার (১৮ আগস্ট) সকাল ৯টায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা যায়, পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।

বিষয়টি নিয়ে আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান জানান, কালকের (সোমবার) মধ্যে লঘুচাপ সৃষ্টি হবে, তার উপর ঈদের দিন বৃষ্টি হওয়া না হওয়া নির্ভর করছে। রবিবার (১৯ আগস্ট) ও সোমবার (২০ আগস্ট) বৃষ্টি বাড়তে পারে। সোমবার পর্যন্ত বৃষ্টি বেশি হলে ঈদের দিন বৃষ্টি হালকা পরবে বলে ধারণা করা যায়।

জানা গেছে, আর ওই লঘুচাপটি ভারতের উড়িশ্যার দিকে চলে গেলে বাংলাদেশেও বৃষ্টি অনেক কম হবে। আর বাংলাদেশের উপর প্রভাব বিস্তার করলে ঈদের সময় বৃষ্টির মধ্যে পড়তে হবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ।

আবহাওয়া অফিস বলছে, আবহাওয়ার ৭২ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়ার কথা।

আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, পবিত্র ঈদুল আজহায় বৃষ্টি হতে পারে। তবে ঈদের আগের দিন বা পরের দিনের পূর্বাভাসে বৃষ্টি নেই।

আর ঈদের দিন পশু কুরবানি দেওয়ার জন্য তাই বৃষ্টি থেকে বাঁচতে আগেই বাড়তি প্রস্তুতি নেওয়াটা শ্রেয়।

শনিবার রাজধানীতে ৩৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের বিভিন্ন স্থানে সামান্য বৃষ্টি হয়েছে। আজ রবিবার ভোরে বজ্রসহ রাজধানীতে বৃষ্টিপাত হয়েছে। ঝড়ো বাতাস ও আকাশ কালো মেঘে ঢেকে আছে। আরও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বোন শেখ রেহানা ও প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা হোসেন ওয়াজেদ (ফাইল ফটো)
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো প্রকার নিজস্ব অ্যাকাউন্ট বা পেইজ নেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বোন শেখ রেহানা ও প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা হোসেন ওয়াজেদের।

তবে বঙ্গবন্ধুর দুই দৌহিত্র সজীব ওয়জেদ জয় ও রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটার অ্যাকাউন্ট আছে বলে জানিয়েছে আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ। শনিবার (১৮ আগস্ট) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন তিনি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শেখ রেহানা এবং প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা ওয়াজেদের নামে যেসব অ্যাকাউন্ট বা পেইজ আছে তাদের কোনো অনুমোদন নেই।

ফেসবুকের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ইতোমধ্যেই সায়মা হোসেন ওয়াজেদের নামে একটি অ্যাকাউন্ট ভেরিফায়েডের চেষ্টা করা হয়েছে, যা এখন ব্লক করে রেখেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া এ ধরনের অনুমোদিত অ্যাকাউন্ট বা পেইজ থেকে সতর্ক থাকতে সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। ভবিষ্যতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের কেউ অ্যাকাউন্ট চালু করলে সেই বিষয়টি গণমাধ্যমে জানানো হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে এই বিজ্ঞপ্তিতে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ও বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয় এর একটি ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ সজীব.ওয়াজেদ ও টুইটার অ্যাকাউন্ট সজীব ওয়াজেদ এবং বঙ্গবন্ধুর আরেক দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রাদওয়ান সিদ্দিক চালু থাকার বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। এসব অ্যাকাউন্ট তারা নিজেরাই পরিচালনা করেন বলেও প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নিশ্চিত করা হয়েছে।

শ্যামনগর

যশোর

আশাশুনি


জলবায়ু পরিবর্তন